কলকাতাঃ  তৃণমূলে যে কোনও মুহূর্তে অস্ত যেতে পারেন সব্যসাচী। ইতিমধ্যে সেই পূর্বাভাস দিয়েছেন ফিরহাদ হাকিম। এখন শুধু অপেক্ষা দলনেত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের শিলমোহরের। এই অবস্থায় আজ সোমবার মেয়র ইন কাউন্সিলরদের নিয়ে বৈঠকে বসবেন ডেপুটি মেয়র তাপস চট্টোপাধ্যায়।

রবিবার বিধাননগরের তৃণমূল কাউন্সিলরদের নিয়ে বৈঠকে বসেন ফিরহাদ। সেই বৈঠকে আজ থেকেই মেয়র সব্যসাচী দত্তের সমস্ত কাজ দেখার জন্যে ডেপুটি মেয়র অর্থাৎ তাপস চট্টোপাধ্যায়কে নির্দেশ দেওয়া হয়। যদিও কোনও লিখিত নির্দেশ না আসাতে পুরসভা যাবেন সব্যসাচীও। সব মিলিয়ে আজ বিধাননগর পুরসভায় রাজনীতি কী হয় সেটাই এখন দেখার।

২০১৫তে তৃণমূলের হয়ে ভোটে লড়েই বিধাননগর পুরনিগমের ডেপুটি মেয়র পদে বসেন৷ দলীয় রাজনীতিতে প্রথম থেকেই আদায় কাঁচকলায় মেয়র ও তাঁর ডেপুটির৷ তাপসবাবু মন্ত্রী সুজিত বসু ঘনিষ্ট বলেই পরিচিত৷ সেই বিরোধকে কাজে লাগিয়েই সব্যসাচী দত্তকে বাগে আনতে মরিয়া তৃণমূল নেতৃত্ব৷ তবে এসব নিয়ে প্রকাশ্যে কিছু জানাতে নারাজ বিধাননগরের ডেপুটি মেয়র৷ দায়িত্ব বাড়তেই তৎপর তিনি৷ kolkata 24×7-কে তিনি জানান, পুরমন্ত্রী ফিরহাদ হাকিমের নির্দেশেই পুরনিগমের কাজ এগিয়ে নিতে যান তিনি৷ ডেপুটি মেয়র বলেন, ‘‘সোমবার বিধাননগর পুরনিগমের মেয়র ইন কাউন্সিলরদের নিয়ে বৈঠক হবে৷ তারপরই পরবর্তী পদক্ষেপ করা হবে৷’’

বিধাননগর পুরনিগমে রয়েছে সাত জন মেয়র ইন কাউন্সিল৷ দলীয় সূত্রে খবর, এদের মধ্যে তিনজন মেয়র অনুগামী৷ বাকি চারজন সুজিত বসু ঘনিষ্ট৷ প্রশ্ন উঠছে, আগামীকালের বৈঠকে তিনজন মেয়র অনুগামী কী অবস্থান গ্রহণ করেন৷ ফলে, সোমবারের বৈঠক বিশেষ তাৎপর্যপূর্ণ৷

উল্লেখ্য রবিবারের বৈঠকে সিদ্ধান্ত নেওয়া হয় যে বিধাননগর পুরনিগমের মেয়র পারিষদদের বৈঠকের দায়িত্ব সামলাবেন তিনি। যতদিন অবধি চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত না নেওয়া হচ্ছে, ততদিন সব্যসাচীর বদলে এই কো-অর্ডিনেশন তাপস চট্টোপাধ্যায় করবেন। আজ বিকেল ৪টেয় বিধাননগর পুরনিগমের মেয়র পারিষদের বৈঠক ডেকেছে তৃণমূল।