স্টাফ রিপোর্টার, জয়গাঁ: বহুদিন থেকেই জয়গায় ভুটানি নোট চলছে। এমন ঘটনা সারা ভারতে নজিরবিহীন। এর আগে জলপাইগুড়ি জেলার বিভিন্ন এলাকায় ভুটানি নোট দেদার চলত। সেই সময় আলিপুরদুয়ারের মহকুমা শাসক সৌমিত্র মোহন নিজে উদ্যোগ নিয়ে বিদেশি মুদ্রার কারবার বন্ধ করেন। তবে অনেকটা নিয়ন্ত্রণে এলেও পুরোপুরি ভুটানি নোটের কারবার বন্ধ হয়ে যায়নি।

ভারতের সীমান্ত শহর জয়গাঁয় এখনও চলে ভুটানি নোট। এই শহরে ভুটানি টাকা ভারতীয় টাকা হিসেবে ব্যবহৃত হয়। তবে সব জেনেশুনেও প্রশাসন একেবারে নিশ্চুপ। প্রশাসনের উদাসীনতা নিয়ে ইতিমধ্যেই প্রশ্ন তুলেছেন সচেতন সাধারণ মানুষ। শুধু তাই নয় কালচিনি ব্লকের বিভিন্ন এলাকায় ভুটানি নোটের রমরমা কারবার। এতে আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছেন ভারতীয় ব্যবসায়ীরা।

স্থানীয়রা অভিযোগ তোলেন ভোটের সময় কিছুটা নিয়ন্ত্রণে এলেও ভোট মিটে গেলে পরিস্থিতি একই রকম হয়ে যায়। ফলে সারা বছরই সীমান্ত শহর জয়গাঁয় ভুটানি নোট রমরমিয়ে চলে। ভারতীয় জাল নোটের বোঝার ক্ষেত্রে রিজার্ভ ব্যাংক নোট সম্পর্কিত নানারকম সর্তকতা জারি করেছে। তবে ভুটানি নোট চেনার কোনও রকম তথ্যই নেই ভারতীয়দের কাছে। সব মিলিয়ে পরিস্থিতি বেশ জটিল।

ভারতীয় টাকায় লেনদেন না হওয়ায় দেশের অর্থনীতিতে প্রভাব পড়ছে। আগামী দিনে ভারতে ভুটানি নোট বন্ধ করতে প্রশাসন উদ্যোগী আন্দোলনে নামার সিদ্ধান্ত নিয়েছে সাধারণ মানুষ।