বর্তমানে ভারতে চাকরির বাজার নিম্নমুখী। লক্ষ লক্ষ ছেলে মেয়েরা প্রত্যেক বছর স্নাতক, স্নাতকোত্তর পাশ করে একটা যুতসই চাকরি যোগাড় করতে পারছে না। করোনা থাবায় দীর্ঘ লকডাউনের পর অবস্থা আরও সঙ্গীন, প্রচুর মানুষ কর্মহীন হয়ে পড়েছেন। যাঁরা বিভিন্ন বেসরকারি জায়গায় কর্মরত কাজের চাপে সেই কাজ ছেড়ে দিয়ে একটা সরকারী চাকরি পাওয়ার ঝোঁক এখন অনেক গুনে বেড়েছে। কারণ সরকারী চাকরির নিরাপত্তা প্রশ্নাতীত ও কাজের চাপ ও তুলনায় কম, সুযোগসুবিধা ও অনেক। তাই এই অবস্থায় নিয়োগের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করল কেন্দ্রীয় সরকার পরিচালিত সংস্থা ভারত হেভি ইলেকট্রিক লিমিটেড বা ভেল। নিয়োগ হবে ৪০ টি পদে। যাঁরা আবেদন করতে ইচ্ছুক তারা আজ থেকে আগামী ২৬ এপ্রিল পর্যন্ত অনলাইনে আবেদন করতে পারবেন

যোগ্যতা: ভেল প্রকাশিত বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, বিভিন্ন পদের ক্ষেত্রে বয়েসের মাপকাঠি বিভিন্ন। যাঁরা ১ এপ্রিল, ১৯৯৪ এর আগে জন্মগ্রহণ করেছেন তাঁরা আবেদন করতে পারবেন। সর্বোচ্চ বয়স ২৭ বছর সংরক্ষণের নিয়ম অনুযায়ী সংরক্ষিত শ্রেণী বয়েসের ক্ষেত্রে ছাড় পাবেন।

শিক্ষাগত যোগ্যতা: সংশ্লিষ্ট ৪০ টি পদে আবেদনের জন্য চাকরিপ্রার্থীদের স্বীকৃত বিশ্ববিদ্যালয় বা শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে বাণিজ্য বিষয়ে নূন্যতম ৭০ শতাংশ নম্বর পেয়ে স্নাতক হাওয়া আবশ্যিক। সংরক্ষিতদের ক্ষেত্রে ৬০ শতাংশ নম্বর পেলেই আবেদন করতে পারবেন। পরীক্ষা হবে মূলত দুটি ধাপে। লিখিত ও গ্রুপ ডিসকাশন। গ্রুপ ডিসকাশনের সময় যাবতীয় নথি জমা দিতে হবে।

আবেদন ফি: অসংরক্ষিত শ্রেণীর চাকরিপ্রার্থীদের জন্য আবেদন ফি ৫০০ টাকা। এর সাথে জিএসটি যুক্ত হবে। তফসিলি জাতি, উপজাতি ও ভেলের প্রাক্তন কর্মীরা কেউ আবেদন করলে ৩০০ টাকা লাগবে। তার সাথে যুক্ত হবে জিএসটি। পরীক্ষা হবে ২৩ মে, ২০২১। ৭ মে থেকে পরীক্ষার্থীরা ভেলের ওয়েবসাইট থেকে অ্যাডমিট কার্ড ডাউনলোড করতে পারবেন। আবেদন করা ও আরও বিস্তারিত বিবরণের জন্য careers.bhel.in এই সাইটটি দেখুন।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনা পরিস্থিতির জন্য থিয়েটার জগতের অবস্থা কঠিন। আগামীর জন্য পরিকল্পনাটাই বা কী? জানাবেন মাসুম রেজা ও তূর্ণা দাশ।