কলকাতাঃ  গত কয়েকদিন আগেই ভাটপাড়া পুরসভা নিজের দখলে নিয়েছেন বারাকপুর শিল্পাঞ্চলের ‘বেতাজ বাদশা’ অর্জুন সিং। বিজেপি পরিচালিত ভাটপাড়া পুরসভায় চেয়ারম্যান নির্বাচিত করেন নিজের ঘনিষ্ঠ আত্মীয়কে। আর তা হওয়ার পর সম্প্রতি এই পুরসভায় এবার সম্পূর্ণ বোর্ড গঠিত হল। তৃণমূল বোর্ডের আমলেই এই পুরসভার সোমনাথ তালুকদার ভাইস চেয়ারম্যান ছিলেন। বিজেপি বোর্ডে তিনি ফের ভাইস চেয়ারম্যান হলেন।

পুরসভার চেয়ারম্যান সৌরভ সিং সম্পূর্ণ বোর্ডের তালিকা দিয়েছেন। তিনি জানিয়েছেন, দেবপ্রসাদ সরকার চেয়ারম্যান-ইন-কাউন্সিল (আলো), মদনমোহন ঘোষ, চেয়ারম্যান-ইন কাউন্সিল (জঞ্জাল), মনোজ গুহ, চেয়ারম্যান ইন কাউন্সিল (স্বাস্থ্য), সোহন প্রসাদ চৌধুরি, চেয়ারম্যান ইন কাউন্সিল( পূর্ত), প্রমোদকুমার সিং, চেয়ারম্যান-ইন-কাউন্সিল (জল) দায়িত্বভার পেয়েছেন। সোমনাথবাবু ভাইস চেয়ারম্যান হলেও আনুষ্ঠানিকভাবে বিজেপিতে যোগদান করেননি। তিনি জানিয়েছেন, আজ সোমবার দিল্লি যাব। আমার সঙ্গে বারাকপুর-১ পঞ্চায়েত সমিতির দুজন সদস্য রয়েছেন। আমরা সেখানেই বিজেপিতে আনুষ্ঠানিকভাবে যোগদান করব।

উল্লেখ্য, লোকসভা ভোটের আগেই ভাটপাড়ার ১১ জন তৃণমূলের কাউন্সিলর তৎকালীন বোর্ড চেয়ারম্যান অর্জুন সিংয়ের পক্ষে ভোট দেন। কিন্তু ভোট মিটতে না মিটতেই ঘটে রাজনৈতিক পরিবর্তন। তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগ দেন ১২ কাউন্সিলার। আরও ১১ জন বিজেপিকে সমর্থন করায় মোট বিজেপির কাউন্সিলরের সংখ্যা দাঁড়ায় ২৩। তৃণমূলের কাউন্সিলর সংখ্যা থাকে মাত্র ১১। মোট ৩৫টি আসনের মধ্যে ১টি সিপিএমের। এবং একজন কাউন্সিলরের মৃত্যু হয়। ফলে বোর্ড দখল শুধুমাত্র ছিল সময়ের অপেক্ষা। ফলে বোর্ড গঠন করার ক্ষেত্রে ম্যাজিক ফিগার চলে আসে বারাকপুরের সাংসদ অর্জুনের পকেটেই।

ইতিমধ্যে ভাটপাড়া বিধানসভা তৃণমূলের হাতছাড়া হয়েছে। বারাকপুরের মতো গুরুত্বপূর্ণ লোকসভা আসনও বিজেপির দখলে। এই অবস্থা ভাটপাড়া পুরসভা তৃণমূলের হাত থেকে ছিনিয়ে নেওয়াটা কার্যত প্রেস্টিস ফাইট ছিল অর্জুনের কাছে। আর সেই প্রেস্টিস ফাইটে শেষ হাসি হেসেছেন বারাকপুর শিল্পাঞ্চলের ‘বেতাজ-বাদশা’ অর্জুনই।