ভাটপাড়া: সাত দিন ধরে নিখোঁজ থাকা এক তরুণীর দেহ উদ্ধার হল ভাটপাড়ায়। বেল্লে শঙ্করপুর এলাকায় মাটির নীচ থেকে উদ্ধার হয়েছে নিখোঁজ ওই তরুণীর দেহ। একটি কুকুর মাটি খুঁড়তে থাকায় প্রথমে তরুণীর দেহের কিছুটা অংশ বেরিয়ে আসে। পরে স্থানীয়রা তা দেখে পুলিশে খবর দেন। পরে পুলিশ গিয়ে মাটি খুঁড়ে তরুণীর দেহ উদ্ধার করে।

স্তানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, মৃত ওই তরুণীর নাম আশা সাউ। ইতিমধ্যেই তরুণীর মৃত্যুর ঘটনার সঙ্গে যুক্ত থাকার অভিযোগে স্থানীয় বাসিন্দা মহম্মদ সাদ্দাম নামে এক যুবককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ। মৃত তরুণীর সঙ্গে ধৃত যুবক সাদ্দামের প্রেমের সম্পর্ক ছিল বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে। তরুণীর মৃত্যুর পিছনে সাদ্দামের যোগ রয়েছে বলে দাবি পুলিশের।

বারাকপুর আদালতের নির্দেশে আপাতত ১০ দিনের পুলিশ হেফাজতে ধৃত সাদ্দাম। এলাকার বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে পুলিশ জানতে পেরেছে মৃত আশা সাউয়ের সঙ্গে দীর্ঘদিন ধরেই প্রেমের সম্পর্ক ছিল এলাকার যুবক সাদ্দামের। ভাটপাড়ার ১০ নম্বর ওয়ার্ডের প্রেমচাঁদ নগরের বাসিন্দা আশা সাউ।

দিন দশেক আগে আচমকা নিখোঁজ হয়ে যান আশা। তরুণীর পরিবারের তরফে থানায় নিখোঁজ ডায়েরি করা হয়। কিন্তু কিছুতেই তাঁর কোনও খোঁজ মিলছিল না।

এদিকে, স্থানীয়দের কয়েকজনের দাবি, ওই তরুণীকে খুন করে প্রমাণ লোপাটের জন্য মাটিতে পুঁতে দেওয়া হয়েছে। ঘটনায় আশার প্রেমিক সাদ্দামের যোগ রয়েছে বলে দাবি বাসিন্দাদের একাংশের। তবে তদন্তের স্বার্থে এখনই এব্যাপারে নিশ্চিত করে কিছু বলতে চায়নি পুলিশ। আপাতত সব দিক খতিয়ে দেখে চলছে তদন্ত।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও