স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: আজ, মঙ্গলবার ভাটপাড়া পুরসভার চেয়ারম্যান নির্বাচন৷ তবে নতুন চেয়ারম্যান কে হচ্ছেন তা নিয়ে মুখে কুলুপ এঁটেছে তৃণমূল শিবির। প্রত্যেকেই বলেছেন, মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় যে নাম পাঠাবেন সেটাই শিরোধার্য। কিন্তু সেই ব্যক্তিটি কে তা নিয়েই এখন ভাটপাড়ায় চলছে গুঞ্জন। তৃণমূল সূত্রের খবর, সত্যেন রায়, হিমাংশু সরকার ও অরুণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের নাম প্রস্তাব করা হয়েছে৷

ভাটপাড়া বিধানসভা তৃণমূলের আহ্বায়ক সোমনাথ শ্যাম বলেন, ‘দল যাকে ঠিক করবে তিনিই চেয়ারম্যান হবেন। আমাদের একটাই লক্ষ্য, ভাটপাড়াকে অর্জুন সিংয়ের হাত থেকে মুক্ত করা এবং মানুষকে সঠিক পরিষেবা দেওয়া।’ আর কিছুক্ষণের মধ্যেই চেয়ারম্যান কে হচ্ছেন তা স্পষ্ট হয়ে যাবে৷

গত ৭ জানুয়ারি ৩৫ আসনের ভাটপাড়া পুরসভায় চেয়ারম্যান সৌরভ সিংয়ের অপসারণ চেয়ে অনাস্থা ভোটে তৃণমূল জিতলেও আদালত তাকে অবৈধ ঘোষণা করে। পাল্টা চ্যালেঞ্জ করে তৃণমূল আদালতে গেলে আদালত ৯ জানুয়ারি চেয়ারম্যান নির্বাচনের পরবর্তী পদ্ধতি ঠিক করতে নির্দেশ দেয়। কিন্তু আদালত থেকে নির্দেশের কপি পেতে দেরি হয়। ভাইস চেয়ারম্যানও সাত দিনের মধ্যে মিটিং ডাকেননি। গত বুধবার সেই মিটিং ডাকার সময়সীমা শেষ হয়েছে। এর পরই বৃহস্পতিবার তিন কাউন্সিলর বৈঠক ডাকেন।

তবে চেয়ারম্যান কে হবেন তা এখনও স্পষ্ট নয়। তৃণমূল সূত্রে খবর, বন্ধ খামে নাম পাঠিয়েছে দলীয় নেতৃত্ব। সেখানে যাঁর নাম থাকবে তাঁকেই যাতে সবাই মনোনীত করেন সে বিষয়েও জানিয়ে দেওয়া হয়েছে দলীয় কাউন্সিলরদের।

উল্লেখ্য, লোকসভা ভোটে দাঁড়ানোর সময় অর্জুং সিং নিজে চেয়ারম্যান পদ ছেড়ে সেই চেয়ারে বসিয়ে এসেছিলেন ভাইপো সৌরভ সিংকে। কিন্তু হালিশহর, কাঁচরাপাড়া, গারুলিয়া, বনগাঁর মতো অর্জুন-দুর্গের ভাটপারা পুরসভাও হাতে রাখতে পারল না বিজেপি।

ভাটপাড়া পুরসভার মোট ওয়ার্ড সংখ্যা ৩৫টি। অর্জুন সিং সাংসদ হওয়ার পর কাউন্সিলর পদ থেকে পদত্যাগ করেছেন। মৃত্যু হয়েছে ভীম সিং নামের এক কাউন্সিলরের। একটি ওয়ার্ড দখলে রয়েছে বামেদের। ফলে এই মুহূর্তে বোর্ড গড়তে দরকার ১৭ জন কাউন্সিলরের সমর্থন। পাঁচজন কাউন্সিলর দল বদল করেননি। তাঁরা তৃণমূলেই রয়ে গিয়েছিলেন। মাঝে পুরনো দলে ফেরেন ১২জন কাউন্সিলর। ফলে যে সংখ্যা দরকার বোর্ড গড়ার জন্য সেটা আগেই জোগাড় করে ফেলেছিলেন জ্যোতিপ্রিয় মল্লিক, পার্থ ভৌমিকরা। পরে আরও দু’জন গেরুয়া সঙ্গ ত্যাগ করে ফিরে আসেন তৃণমূলে। সেই ১৯ নিয়েই ভাটপাড়া দখল করে তৃণমূল।