ময়নাঃ পশ্চিমবঙ্গের একমাত্র সিম্বল হল বোমা সিম্বল। এই বোমা সিম্বল এখন তৃণমূলে দাদাদের হাতে হাতে চলে এসেছে। যা দিয়ে তারা বিরোধীদের বোমাবাজি করে প্রাণে মেরে দিচ্ছে।

শনিবার রাতে ময়নার বিজেপির কর্মীকে বোমা মেরে খুনের ঘটনায় এমনভাবেই তৃণমূলের বিরুদ্ধে তোপ দাগলেন বঙ্গ বিজেপির সহ-সভাপতি ভারতী ঘোষ।

সোমবার তিনি খুন হওয়া বিজেপি কর্মী দীপক মন্ডলের বাড়িতে যান। সেখানে তার ছবিতে শ্রদ্ধা জানান। এবং তার পরিবারের লোকজনদের সঙ্গে কথা বলেন। এরপরেই সংবাদমাধ্যমের মুখোমুখি হন ভারতী ঘোষ।

শনিবার রাতে ময়নায় বিজেপি কর্মীকে সবংয়ে খুনের ঘটনায় উত্তপ্ত হয়ে রয়েছে জেলার রাজনীতি। রাজ্যের বিরোধী দল বিজেপির তরফ থেকে এই খুনের ঘটনায় তৃণমূলকে দায়ী করলেও দায় এড়িয়ে গিয়েছে শাসকদল।

রবিবার রাতে বিজেপি কর্মীর দেহ আসতেই ক্ষোভ- বিক্ষোভে ফেটে পড়েন বিজেপির নেতা- কর্মীরা। এরপর সোমবার সন্ধ্যায় মৃত বিজেপি কর্মী দীপক মন্ডলের বাড়িতে গিয়ে তার পরিবারের লোকজনদের সঙ্গে দেখা করেন বিজেপি রাজ্য সহ- সভাপতি ভারতী ঘোষ।

তিনি এদিন বিজেপি কর্মীর ছবিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানানোর পাশাপাশি পরিবারের লোকজনদের সমবেদনা জানান। পাশাপাশি শাসকদল তৃণমূলকে কটাক্ষ করতেও ছাড়েননি তিনি।

তিনি বলেন, “তৃণমূল যেভাবে অসম্ভব বিকর্ষণ তৈরি করছে ইতিহাস তাদের ক্ষমা করবে না। সামনের একুশে আপনারা একটি আঙ্গুল দিয়ে ভোট দিলে এই রাবণের সরকার ও রাক্ষসের সরকারকে দূর করে দেব।” তৃণমূলের পাশাপাশি রাজ্যের পুলিশকেও তিনি কটাক্ষ করতে ছাড়েননি।

তিনি বলেন, “যে পুলিশ অফিসাররা আজকে ন্যায় বিচার দিতে ভয় পাচ্ছে এবং সুযোগের জন্য ন্যায় বিচার দিচ্ছে না তাদের আমরা খুঁজে খুঁজে সুদে-আসলে মিটিয়ে নেবো। এই কেশে তো আমরা লড়বই এবং কেন তারা এই কেসে ন্যায় বিচার দেয়নি সেজন্য লড়বোই।”

দীপক মন্ডল খুনের ঘটনায় ভারতী ঘোষ হুশিয়ারি দিয়ে বলেন, “দীপক মন্ডল খুনের ঘটনায় যাদের যাদের নামে এফআইআর হয়েছে তাদেরকে তিনদিনের মধ্যে যদি ধরা না হয় তাহলে আমরা চারদিনের দিন কোর্টে যাব। সেখানে আমরা সিবিআই তদন্তের দাবি জানাবো। আর সেখানেই দোষীদের পাশাপাশি পুলিশ সহ যারা এটা করেছে সবাই কিন্তু সিবিআইয়ের চোখের সামনে উঠে আসবে।”

এদিন ভারতী ঘোষ ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন তমলুক সাংগঠনিক জেলা বিজেপির সভাপতি নবারন নায়েক সহ-সভাপতি আশিস মণ্ডল সহ অন্যান্যরা।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।