মুম্বই: ‘পদ্মাবতী’ ছবি নিয়ে বিতর্কে ইতি টানতে উদ্দ্যোগী হলেন পরিচালক সঞ্জয় লীলা বনসালী৷ মুক্তির আগে ছবির স্পেশাল স্ক্রিনিংয়ের জন্য অবশেষে রাজী হলেন তিনি৷ নভেম্বরের মাঝামাঝি সময়ে স্পেশাল কমিটিকে দেখানো হবে ছবিটি৷

শুরু থেকেই বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে পদ্মাবতী ছবিটি৷ রাজপুত রাণী পদ্মাবতীকে কেন্দ্র করে গল্প বুনেছেন পরিচালক সঞ্জয় লীলা বনসালী৷ ছবিতে রাণী পদ্মাবতীর সঙ্গে আলাউদ্দিন খলজীর প্রেমের দৃশ্য দেখানো হয়েছে এই অভিযোগে রাজপুত কর্ণি সেনা প্রথমে শ্যুটিংয়ে বাধা দেয়৷ ছবির পরিচালককে নিগ্রহ করে তারা৷ তবে সব বাধা পেরিয়ে শেষমেষ ছবির শ্যুটিং শেষ করেন পরিচালক সঞ্জয় লীলা বনসালী৷

ছবিটি আগামী ১লা ডিসেম্বর মুক্তি পাওয়ার কথা৷ এদিকে মুক্তির দিন যত এগিয়ে আসছে ততই প্রতিবাদের সুর চড়ছে৷ ছবি মুক্তি আটকাতে রাজস্থান, গুজরাত এমনকী মুম্বইতেও প্রতিবাদ আছড়ে পড়েছে৷ মিড ডে জানিয়েছে, শনিবার বনসালীর জুহুর অফিসের সামনে প্রতিবাদ দেখাতে গিয়ে অখণ্ড রাজপুতানা সেবা সংঘের পনের জন সদস্যকে আটক করেছে পুলিশ৷ তাদের দাবি, মুক্তির আগে স্পেশাল স্ক্রিনিংয়ের ব্যবস্থা করে ছবিটি দেখাতে হবে৷

অবশেষে সেই দাবি মেনে নিয়েছেন পরিচালক সঞ্জয় লীলা বনসালী৷ অখণ্ড রাজপুতানা সেবা সংঘের জাতীয় সভাপতি আরপি সিং মিড ডে কে জানান, পরিচালকের অফিস থেকে তাদের ফোন করা হয়েছিল৷ তারা মুক্তির আগে ছবিটি দেখানোতে সায় দিয়েছে৷ ১৫ থেকে ১৮ই নভেম্বরের মধ্যে রাখা হবে স্পেশাল স্ক্রিনিং৷

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

করোনাকালে বিনোদন দুনিয়ায় কী পরিবর্তন? জানাচ্ছেন, চলচ্চিত্র সমালোচক রত্নোত্তমা সেনগুপ্ত I