বহরমপুর: ফের আন্তর্জাতিক সীমান্ত লাগোয়া এলাকা থেকে ভারতীয় কৃষকদের অপহরণের ঘটনায় অভিযুক্ত বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ। গত বছর কোচবিহারের কুচলিবাড়িতে এমনই ঘটনা ঘটেছিল। এবার মুর্শিদাবাদ জেলার রানিনগরের বামনাবাদে দুই ভারতীয় কৃষককে তুলে নিয়ে যাওয়ায় চাঞ্চল্য ছড়িয়েছে।

পড়ুন আরও- ‘কথায় কাটবে জট, উসকানি অনুচিত’, মোদীর লাদাখ সফরে প্রতিক্রিয়া চিনের

বিজিবি রক্ষীদের হাতে আটক দুই কৃষকের নাম নয়ন শেখ ও সাইদুল ইসলাম। সীমান্তের ওপারে বাংলাদেশের রাজশাহী। এপারে মুর্শিদাবাদ জেলার আন্তর্জাতিক সীমান্তের কাছে ভারতীয় ভূখণ্ডে চাষ করছিলেন নয়ন ও সাইদুল। জলঙ্গীর বাসিন্দা তাঁরা। অভিযোগ, তাদের বাংলাদেশে নিয়ে গিয়ে আটকে রাখা হয়েছে।

অপহৃত দুই ভারতীয় কৃষককে দেশে ফেরানোর বিষয়ে বিএসএফ ও জেলা প্রশাসনের দ্বারস্থ হলেন আত্মীয়রা। ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক চাঞ্চল্য তৈরি হয়েছে। জেলা প্রশাসন সূত্রে খবর, বাংলাদেশে আটকে রাখা নয়ন শেখ ও সাইদুল ইসলামকে দেশে ফেরানোর ব্যাপারে কথা চলছে।

বিজিবি কমান্ডিং অফিসারদের সঙ্গে কথা বলছেন বিএসএফ অফিসাররা। গত বছর অগস্ট মাসে কোচবিহারের কুচলিবাড়ি সীমান্তের কাছে ভারতীয় কৃষক জগবন্ধু রায়কে অপহরণ করেছিল বিজিবি।পরে দুই দেশের সীমান্তরক্ষী বাহিনির আলোচনায় জট কাটে। ফিরে আসেন ওই কৃষক।

তার আগে সীমান্ত পেরিয়ে দুই বাংলাদেশির অনুপ্রবেশ আটকেছিল বিএসএফ। সম্প্রতি বাংলাদেশের দিক থেকে বেশ কয়েকবার অনুপ্রবেশ আটকে দেয় বিএসএফ। গুলিও চালায়।

ফাইল ছবি

বাংলাদেশ সীমান্তরক্ষীদের অভিযোগ, বিনা প্ররোচনায় গুলি চালিয়েছিল বিএসএফ। যদিও বিএসএফের দাবি, যে ভাবেই হোক অনুপ্রবেশ বন্ধ করা হবে। এর পরেই মুর্শিদাবাদ জেলার আন্তর্জাতিক সীমান্ত এলাকায় দুই ভারতীয় কৃষককে তুলে নিয়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটল।

অন্যদিকে এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে ব্যাপক উত্তেজনা তৈরি হয়েছে। তবে বাংলাদেশের সঙ্গে ভারতের বন্ধুত্বপূর্ণ সম্পর্ক। দু’দেশ বিপদে-আপদে পাশে থাকে। দ্রুত সমস্যার সমধান হয়ে যাবে বলেই আশা করা হচ্ছে।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ