শ্রেয়সী কুণ্ডু, শিলিগুড়ি:  শিলিগুড়ি : ঘরে অভাব নিত্য সঙ্গি৷ ফলে, পয়সা খরচ করে কখনও আঁকা শিখতে পারেনি সে। তবুও রাজ্য সরকারের উদ্যোগে আয়োজিত  কন্যাশ্রী দিবস উপলক্ষে পোস্টার অঙ্কন প্রতিযোগিতায় শিলিগুড়ি মহকুমায় প্রথম হয়ে তাকে লাগিয়ে দিল একাদশ শ্রেণির ছাত্রী দীপশিখা।  শিলিগুড়ি নেতাজী বয়েজ হাই স্কুলের একাদশ শ্রেণির ছাত্রী দীপশিখা, কন্যাশ্রী পোস্টের অঙ্কন প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করে শিক্ষার মাধ্যমে কন্যা শিশুকে ক্ষমতাশালী করে দেওয়ার বার্তাই ছবির মাধ্যমে ফুটিয়ে তুলেছে। যার নাম দিয়েছে ‘কন্যা শিশুর ক্ষমতায়ণ’। কখনও ছবি আঁকা না শেখা দীপশিখার  এতো সুন্দর ভাবনা ছবির মাধ্যমে উঠিয়ে তুলেছে যা দেখে অবাক তার স্কুলের শিক্ষক শিক্ষিকারাও।

দীপশিখার মা কৃষ্ণা আচার্য জানান, তাঁর স্বামী ঋতেশ আচার্য সংবাদপত্র বিক্রেতা৷ বাড়ি বাড়ি পেপার বিলি করে যা উপার্জন করেন তা দিয়ে  সংসারের খরচ মেয়ের পড়াশোনা চিকিৎসার খরচ চালিয়ে উঠতে পারেন না।  তাই দিনের বাকি সময়টি একটি ওষুধের দোকানে কাজ করেনা। কিন্তু ঘরে অভাব নিত্য সঙ্গী থাকায় ইচ্ছে সত্বেও মেয়েকে এই আর্ট স্কুলে ভর্তি করতে পারেননি। কিন্তু মেয়ে ছোটবেলা থেকেই  বাড়িতে বসে নিজে নিজেই রং পেন্সিল নিয়ে আঁকিবুঁকি করতে করতে সুন্দর ছবি ফুটিয়ে ওঠাতো। দীপশিখা  জানিয়েছে,  প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণের জন্য নাম দেওয়ার পরেই ওর মাথায় এসেছিল পোস্টার অঙ্কনে এমন একটি বার্তা দিতে হবে এমন একটি ভাবনা ফুটিয়ে তুলতে হবে যে কন্যা শিশুদেরকে মা বাবা অবহেলা না করে তাঁকে শিক্ষার বিকাশ ঘটিয়ে এগিয়ে দিতে সাহায্য করে। শিক্ষা কে অবলম্বন করে সে ক্ষমতাশালী হয়ে উঠতে পারে। কখনও আঁকি শেখেনি সে, তবে একটি বই দেখে একটি কন্যাশ্রী ও কন্যাশ্রীর প্রতীক দিয়ে তাঁর ভাবকে ছবির মাধ্যমে ফুটিয়ে তুলে একটি পোস্টের তৈরি করে তার ওপরে কন্যাশিশুর ক্ষমতায়ণ বার্তাটি দিয়েছে। রবিবার শিলিগুড়ি দীনবন্ধু মঞ্চে অনুষ্ঠিত কন্যাশ্রী দিবস অনুষ্ঠানে দীপশিখাকে পুরস্কৃত হয়।

এছাড়াও গত ৭ তারিখ তৃণমূল সরকারের ৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে শিলিগুড়ি বয়েজ হয় স্কুলে মা মাটি মানুষ নাম একটি প্রদর্শনী মালা আয়োজিত হয়েছিল।  সেখানেই দীপশিখার ছবিটিও প্রদর্শন করা হয়।