পানাজি: আইএসএলের ষষ্ঠদশ ম্যাচে শুক্রবার মুখোমুখি দু’বারের চ্যাম্পিয়ন চেন্নাইয়িন এফসি বনাম বেঙ্গালুরু এফসি। ব্যাম্বোলিমের জিএমসি স্টেডিয়ামে দু’দলই টুর্নামেন্টে নিজেদের তৃতীয় ম্যাচ খেলতে নামছে। একটি ম্যাচ জিতে এবং একটি ড্র করে ঝুলিতে ৪ পয়েন্ট নিয়ে বেঙ্গালুরুর বিরুদ্ধে নামছে চেন্নাইয়িন। অন্যদিকে প্রথম দু’ম্যাচেই ড্র করেছে বেঙ্গালুরু। অর্থাৎ দু’ম্যাচে ২ পয়েন্ট নিয়ে শুক্রবার দক্ষিণের ডার্বিতে মাঠে নামছে সুনীল ছেত্রী অ্যান্ড কোম্পানি।

প্রথম ম্যাচে জামশেদপুরকে ২-১ গোলে হারানোর পর দ্বিতীয় ম্যাচে কেরালা ব্লাস্টার্সের বিরুদ্ধে গোলশূন্য ড্র করেছে চেন্নাইয়িন। অন্যদিকে এফসি গোয়ার বিরুদ্ধে প্রথম ম্যাচে দু’গোলে এগিয়ে গিয়েও ড্র করতে হয়েছিল কার্লোস কুয়াদ্রাতের বেঙ্গালুরু এফসি’কে। দ্বিতীয় ম্যাচে হায়দরাবাদ এফসি’র বিরুদ্ধে গোলশূন্য ড্র করেছে ব্লুজ’রা। অর্থাৎ, শুক্রবার ডার্বিতে টুর্নামেন্টে প্রথম জয়ের লক্ষ্যে বেঙ্গালুরু।

এর আগে আইএসএলে ৭ বার মুখোমুখি হয়েছে চেন্নাইয়িন এবং বেঙ্গালুরু। দু’দলই জিতেছে ৩টি করে ম্যাচ। একটি ম্যাচ ড্র। চেন্নাইয়িন কোচ সিসাবা লাজেলো ম্যাচের আগে জানিয়েছেন, ‘এটা বিশেষ একটা ম্যাচ আমাদের কাছে যেহেতু এটা ডার্বি। আমরা জয়ের জন্য সমস্তরকম চেষ্টা করব। কারণ এই ম্যাচে তিন পয়েন্ট আমাদের লিগ টেবিলে অবস্থান আরও ভালো করবে।’ অন্যদিকে গোয়ার বিরুদ্ধে দু’গোলে এগিয়ে থেকেও গোল হজম করে ম্যাচ ড্রয়ের পরেও ইতিবাচক বেঙ্গালুরু কোচ।

তিনি জানিয়েছেন ওটা মুহূর্তের অসচেতনতা ছিল। ওটা বাদে দু’টো ম্যাচে আমরা বিপক্ষের আক্রমণ নিয়ন্ত্রণ করেছি। পাশাপাশি সুনীল ছেত্রী, ক্লেইটন সিলভা, ক্রিস্টিয়ান ওসপেথ সমৃদ্ধ আক্রমণভাগ এখনও প্রমাণ করে উঠতে পারেনি। মুখে স্বীকার না করলেও বিষয়টি নিয়েও মাথাব্যথা রয়েছে বেঙ্গালুরুর অন্দরমহলে। একনজরে দেখে নেওয়া যাক দু’দলের সম্ভাব্য একাদশ-

চেন্নাইয়িন এফসি সম্ভাব্য একাদশ: বিশাল কাইথ, রিগান সিং, এলি সাবিয়া, এনেস সিপোভিচ, লালচুয়ানমাওয়াইয়া, অনিরুদ্ধ থাপা, জারমনপ্রীত সিং, লালিয়ানজুয়ালা ছাংতে, রাফায়েল ক্রিভেলারো, এসমাইল গন্সালভেস, জাকুব সিলভেস্টার।

বেঙ্গালুরু এফসি সম্ভাব্য একাদশ: গুরপ্রীত সিং সান্ধু, জুয়ানন, ফ্রান গঞ্জালেস, হরমনজোৎ খাবরা, আশিক কুরনিয়ান, এরিক পারতালু, উদান্তা সিং, সুরেশ সিং ওয়াংজাম, ক্লেইটন সিলভা, ক্রিস্টিয়ান ওসপেথ, সুনীল ছেত্রী।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।