বেঙ্গালুরু: সোশ্যাল মিডিয়া পোস্ট ঘিরে ব্যাপক উত্তেজনা। মঙ্গলবার রাতে উত্তেজনা ছড়াল বেঙ্গালুরুতে ডিজে হাল্লি এলাকায় বিক্ষোভকারীদের উপস্থিতি চোখে পড়ছে। ‘ব্যাঙ্গালোর মিরর’-এর রিপোর্ট অনুযায়ী, অভিযোগ, কংগ্রেস বিধায়ক আর অখণ্ড শ্রীনিবাস মূর্তির এক আত্মীয় ওই পোস্ট করেন।

সংবাদসংস্থা এএনআই সূত্রে খবর, এদিনের ঘটনায় দু’জনের মৃত্যু হয়েছে। ৬০ জন পুলিশকর্মী আহত হয়েছেন বলেও খবর।

পুলিশ কমিশনার কমল পন্ত জানিয়েছেন, এসিপি সহ ৬০ জন পুলিশকর্মী আক্রান্ত। পুলিশের ফায়ারিংয়ে দু’জনের মৃত্যু হয়েছে বলে অভিযোগ। একজনকে আহত অবস্থায় হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। ডিজে হাল্লি ও কেজি হাল্লি এলাকায় উত্তেজনা ছড়িয়েছে বলে পুলিশ সূত্রে খবর। ইতিমধ্যেই জারি করা হয়েছে ১৪৪ ধারা।

জানা গিয়েছে, ফেসবুকে পোস্টটি করেন বিধায়কের আত্মীয়। এরপরই ছড়ায় বিক্ষোভ। কংগ্রেস বিধায়কের বাড়ির সামনে জড় হয়েছেন বহু মানুষ। তাঁর বাড়ির দিকে পাথর ছুঁড়ছে উত্তেজিত জনতা।

ডিজি হাল্লি এলাকায় এই বিক্ষোভের ছবি দেখা যাচ্ছে রাতের অন্ধকারে। পুলকেশিনগরের বিধায়ক ওই আর অখণ্ড শ্রীনিবাস মূর্তি।

টাইমস নাউ-এর রিপোর্ট অনুযায়ী, থানার সামনে বিক্ষোভের পরিস্থিতি। জানা গিয়েছে, স্থানীয়র থানায় গিয়ে ওই বিধায়কের আত্মীয়ের বিরুদ্ধে এফআইআর করতে চেয়েছিলেন। কিন্তু অভিযোগ নেওয়ার ক্ষেত্রে গুরুত্ব দেয়নি পুলিশ, তখনও বিক্ষোভ শুরু হয়। ডিসিপি-র উপরেও হামলা হয়েছে বলে অভিযোগ।

বিধায়কের ওই আত্মীয় জানিয়েছেন, তাঁর অ্যাকাউন্ট হ্যাক হয়েছিল। ওই পোস্টের বিষয়ে কিছু জানেন না তিনি। কর্ণাটকের স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ঘটনায় তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও