নয়াদিল্লি: অনাবাসী(NRI) ভারতীয়দের জন্য সুখবর৷ বিদেশে থেকেও এবার তাঁরা ভোট দিতে পারবেন পোস্টাল ব্যালটের মাধ্যমে৷ শুধু বিদেশ থেকেই নয়,দেশেরে যে কোনও প্রান্ত থেকে দেওয়া যাবে ভোট৷ এমনটাই ইঙ্গিত দিলেন মুখ্য নির্বাচন কমিশনার সুনীল অরোরা৷

সূত্রের খবর, আমেরিকায় পোস্টাল ব্যালটের কায়দায় এবার ভারতেও রিমোট ভোটিং এর সুবিধা চালুর কথা ভাবছে নির্বাচন কমিশন৷ এই পদ্ধতিকে বলা হয় ইলেকট্রিক্যালি ট্রান্সমিটেড পোস্টাল ব্যালেট সিস্টেম (Electronically-Transmitted Postal Ballot System)৷

এর জন্য শীঘ্রই পরীক্ষামূলকভাবে মক ট্রায়ালও শুরু হয়ে যাবে। ২০২৪ সালের লোকসভা নির্বাচনের আগে যাতে বিদেশ ও ভিনরাজ্যে বসে ভোট দেওয়া যায় সেই ব্যবস্থাই করছে কমিশন৷ আইআইটি মাদ্রাজ এবং অন্যান্য প্রতিষ্ঠানগুলিকে সঙ্গে নিয়ে এই প্রকল্পকে সফল করা হবে৷

রিমোট ভোটিং এর সুবিধা চালুর আবেদন করে বিদেশমন্ত্রককে চিঠি লিখেছে নির্বাচন কমিশন৷ বিদেশমন্ত্রক সেই প্রস্তাবে সম্মত হয়েছে বলে সূত্রের খবর। এতদিন এই সুযোগ পেতেন সেনাকর্মী ও বিদেশে কর্মরত সরকারি কর্মীরাই। এবার তা পাবেন অনাবাসী ভারতীয়রাও৷

এদিকে পশ্চিমবঙ্গে ২০২১ বিধানসভা ভোটের প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে৷ ইতিমধ্যেই রাজ্যে ঘুরে গিয়েছে কমিশনের ফুল বেঞ্চ৷ তারপর তারা দিল্লিতে রিভিউ মিটিং করেন৷

তার আগে রাজ্যের দায়িত্বে থাকা নির্বাচন কমিশনের ডেপুটি নির্বাচন কমিশনার সুদীপ জৈন দু’বার রাজ্যে এসে বিভিন্ন স্তরে বৈঠক করেছেন৷ এবার অবাধ ও শান্তিপূর্ণ নির্বাচন করতে চায় নির্বাচন কমিশন৷

বিরোধীদের দাবি অনুযায়ী তিন মাস আগে রাজ্যে কেন্দ্রীয় বাহিনী পাঠানো সম্ভব নয়ে বলে আগেই জানিয়েছে নির্বাচন কমিশন৷ তবে নির্বাচনের অনেক আগেই এবার রাজ্যে এসে পৌঁছতে পারে কেন্দ্রীয় বাহিনী৷

রাজ্যে আসতে পারে ১০০০ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী৷ এমনটাই নির্বাচন কমিশন সূত্রে খবর৷ গত লোকসভা নির্বাচনে রাজ্যে এসেছিল ৭৪৯ কোম্পানি কেন্দ্রীয় বাহিনী

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।