নয়াদিল্লি: পরিযায়ী শ্রমিকদের ব্যাপারে স্পষ্ট কোনও তথ্যই কেন্দ্রীয় সরকারকে পাঠায়নি বাংলার তৃণমূল নেতৃত্বাধীন সরকার, তাই প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ যোজনায় রাখা যায়নি বাংলাকে, এমনই দাবি কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমনের। কেন্দ্রের জনহিতকর সব প্রকল্প নিয়ে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় রাজনীতি করছেন বলেও অভিযোগ তোলেন এই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী।

লকডাউনের জেরে লক্ষ-লক্ষ পরিযায়ী শ্রমিকের রুজি-রোজগারের প্রশ্নে ব্যাপক সংকট তৈরি হয়েছে। চরম এই সংকট মোকাবিলায় তৎপরতা নিয়েছে কেন্দ্রীয় সরকার।

দেশের ৬টি রাজ্যের ১১৬টি জেলায় গরিব কল্যাণ যোজনা চালু করেছে কেন্দ্র। অর্থনৈতিক এই সংকট মোকাবিলায় মোট ২৫টি পরিকল্পনা চিহ্নিত করেছে কেন্দ্রীয় সরকার। এই প্রকল্পগুলির আওতাতেই কাজ দেওয়া হচ্ছে পরিযায়ী শ্রমিকদের।

কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী গরিব কল্যাণ প্রকল্পের জন্য বিহার, ঝাড়খন্ড, উত্তরপ্রদেশ, ওড়িশা, রাজস্থান এবং মধ্যপ্রদেশের ১১৬টি জেলাকে চিহ্নিত করা হয়েছে।

আশ্চর্যের কথা হলো এই প্রকল্পে নাম নেই বাংলার। কেন্দ্রের এই পদক্ষেপে যারপরনাই ক্ষুব্ধ বাংলার তৃণমূল নেতৃত্বাধীন রাজ্য সরকার। বিরোধী বাম-কংগ্রেসও কেন্দ্রের এই পদক্ষেপে ক্ষোভ জানিয়েছে। কেন্দ্রের বিরুদ্ধে বাংলাকে বঞ্চনা করার অভিযোগ উঠেছে।

এবার কেন্দ্রের বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগের পাল্টা উত্তর দিতে আসরে নামলেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমন। প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ যোজনায় বাংলার নাম না থাকার কারণ হিসেবে পাল্টা তৃণমূল সরকারকেই কাঠগড়ায় তুলেছেন কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রী।

তাঁর অভিযোগ, ‘কেন্দ্রের সব ধরনের জনহিতকর কাজ নিয়ে রাজনীতি করছে বাংলার সরকার। বাংলার পরিযায়ী শ্রমিকদের ব্যাপারে কেন্দ্রকে কোনও তথ্যই দেয়নি রাজ্য সরকার। সেই কারণেই কেন্দ্রের এই প্রকল্পে নাম নেই বাংলার।’

এরই পাশাপাশি শ্রমিক স্পেশাল ট্রেন বাংলায় ঢোকার ক্ষেত্রেও মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের বিরুদ্ধে অসহযোগিতার অভিযোগ তুলেছেন এই কেন্দ্রীয় মন্ত্রী।

প্রধানমন্ত্রী গরিব কল্যাণ যোজনার সুবিধা পেতে পরিযায়ী শ্রমিকদের নিয়ে অন্য ৬ রাজ্য কেন্দ্রকে প্রয়োজনীয় তথ্য দিলেও বাংলা কোনও তথ্য দেয়নি বলে অভিযোগ নির্মলা সীতারমনের। মুখ্যমন্ত্রীর অনীহার কারণেই বাংলা একের এক কেন্দ্রীয় প্রকল্প থেকে বঞ্চিত হচ্ছে বলে দাবি কেন্দ্রীয় অর্থমন্ত্রীর।

নির্মলা সীতারমণ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে আক্রমণ করে আরও বলেন, ‘আমাদের প্রধানমন্ত্রী একটি প্রকল্প চালু করেছিলেন। যা দেশের ১১৬টি জেলা জুড়ে রয়েছে। তবে বাংলার তৃণমূল সরকার আমাদের সঙ্গে কোনও তথ্য ভাগাভাগি করার জন্য মাথা ঘামায় না। তাই বাংলাকে এই প্রকল্পে অন্তর্ভুক্ত করা যায়নি। বাংলায় ক্ষমতাসীন প্রশাসন চাইছে না যে কেন্দ্রের কোনও জনকল্যাণমূলক প্রকল্প পশ্চিমবঙ্গে কার্যকর হোক।’

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV