স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: লকডাউনের সময় রাজ্যের রেশন বন্ঠনকে কাঠগড়ায় তুললেন প্রদেশ কংগ্রেস সভাপতি সোমেন মিত্র। তাঁর অভিযোগ, অধিকাংশ জায়গাতেই রেশনের সিংহভাগ খাদ্যসামগ্রী তৃণমূলের লোকেরাই পাচ্ছে।

বুধবার এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে প্রদেশ সভাপতির প্রশ্ন, ” গত ২১শে মার্চ বাংলার মুখ্যমন্ত্রী বলেছিলেন রাজ্য সরকারের তরফে চাল, গম বিনামূল্যে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত দেওয়া হবে। তাহলে এই রাজ্যের মানুষের জন্য বরাদ্দ খাদ্য দ্রব্য কোথায় যাচ্ছে ?”

তিনি বলেছেন, “বিভিন্ন জেলা থেকে অভিযোগ আসছে রেশন ডিলার পর্যাপ্ত চাল – গম দিচ্ছে না। রেশন ডিলার বলছেন যে, তাঁদের বরাদ্দ কোটাও পূরণ হচ্ছে না। হুগলী জেলার বিস্তীর্ন এলাকা , বর্ধমান , নদীয়া , হাওড়া , উত্তর ও দক্ষিণ ২৪ পরগনা বিভিন্ন জেলার গরিব মানুষের একই অভিযোগ। আমরা রোজ টিভিতে মুখ্যমন্ত্রীর ভাষণ শুনছি কিন্তু তার সঙ্গে বাস্তবের মিল কোথায় ? “

মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের প্রশাসনকে একহাত নিয়ে সোমেন মিত্র বলেন, কোথাও তৃণমূলের ছোট, মেজো নেতারা ধমকে রেশন ডিলারদের থেকে মাল নিয়ে দলের পক্ষ থেকে নিজেদের লোকদের মধ্যে বিলি করছে বলেও অভিযোগ আসছে। তবে কি এই করোনা ভয়াবহতার মধ্যেও ‘পাইয়ে দেওয়ার ’ রাজনীতি চলবে?

তিনি এও বলেছেন, “তৃণমূলের লোকেরা রেশন দোকানের সামনে মাতব্বরি করে সরকারের দেওয়া রেশন বন্টন করছে – এর থেকে নগ্ন রাজনীতি কি হতে পারে ?” প্রসঙ্গত, দু’দিন আগেই উত্তর দমদম পুরসভার ২১ নম্বর ওয়ার্ডের কাউন্সিলরের বিরুদ্ধে রেশন দোকান থেকে ১০ বস্তা চাল লুঠ করার অভিযোগ উঠেছে। পরে পুলিশ গিয়ে ওই কাউন্সিলরের বাড়ি থেকে চালের বস্তা উদ্ধার করেছে।

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

Tree-bute: রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও