স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: পশ্চিমবঙ্গে করোনা আক্রান্তের সংখ্যা ছাড়াল চার হাজার।এক দিনে মৃত্যু হয়েছে পাঁচ জনের, ফলে রাজ্যে এ পর্যন্ত মোট মৃত্যু পৌঁছল ২১১-তে। মঙ্গলবার বিকেলে নবান্নের সাংবাদিক বৈঠকে এমনটাই জানালেন রাজ্যের স্বরাষ্ট্র সচিব আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায়।

এদিন তিনি জানান, গত ২৪ ঘণ্টায় রাজ্যে নতুন করে করোনায় আক্রান্ত হয়েছেন ১৯৩ জন। এই নিয়ে মোট আক্রান্তের সংখ্যা দাঁড়াল ৪০০৯! গত ২৪ ঘণ্টায় ৭২ জন সেরে ওঠার পরে এখনও পর্যন্ত মোট সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১৪৮৬ জন। স্বরাষ্ট্রসচিব আরও জানান এ পর্যন্ত রাজ্যে দেড় লক্ষের বেশি নমুনা পরীক্ষা হয়েছে। তাঁর কথায়, “আমরা স্যাম্পল টেস্টেের লক্ষ্যের লাইনটিও ক্রস করেছি। এটা একটা ভাল দিক।”

পাশাপাশি তিনি জানান, সরকারি কোয়ারেন্টাইনে এখন আছেন ১৮ হাজার ১৪৬ জন। কোয়ারেন্টাইন পর্ব পার করে ছাড়া পেয়েছেন ৪ হাজার ২২২ জন। এখনও হোম কোয়ারেন্টাইনে আছেন ১৩ হাজার ৫৬৪ জন। গত কয়েক দিন ধরেই রাজ্যে করোনা সংক্রমণের গতি বাড়ছে। বিভিন্ন জেলা থেকে সংক্রমণের খোঁজ মিলছে। নবান্নের কর্তারা মনে করছেন, এর অন্যতম কারণ হল, গত কয়েক দিনে বাইরে থেকে পরিযায়ী শ্রমিকদের ঘরে ফেরা।

সংক্রমণ বাড়লেও শ্রমিকদের ফেরানো বন্ধ রাখা হচ্ছে না বলে জানান স্বরাষ্ট্রসচিব। প্রায় এক সপ্তাহ বন্ধ থাকার পর ভিন রাজ্য থেকে আটকে পড়া শ্রমিকদের নিয়ে শ্রমিক স্পেশ্যাল ট্রেন আবার রাজ্যে আসছে। স্বরাষ্ট্র সচিব জানান, বুধবার থেকে এরকম ২০৬ টি ট্রেন রাজ্যে আসবে।

প্রত্যেকদিন আট থেকে দশটি করে ট্রেনে আটকে পড়া শ্রমিকরা রাজ্যে ফিরবেন। এতে করোনা সংক্রমণের আশঙ্কা প্রকাশ করে আলাপন বন্দ্যোপাধ্যায় জানিয়েছেন, সীমান্ত এলাকা বা রেলস্টেশনে যেখানে পরিযায়ী শ্রমিকরা এসে পৌঁছবেন সেই সব জায়গায় যাতে অতিরিক্ত ভিড় না হয় তার ওপর নজর রাখা হচ্ছে।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।