সৌপ্তিক বন্দ্যোপাধ্যায়, কলকাতা: কয়েকদিন আগেই বেহালা সংলগ্ন জিঞ্জিরা বাজারের রাস্তার হাল হকিকত আমরা দেখিয়েছিলাম৷ আজ সেই বেহালা সংলগ্ন এলাকাতেই বাগপোতার নিমতলা এলাকায় রাস্তার খবর করতে গিয়ে আক্রান্ত হতে হল সংবাদ মাধ্যমকে৷

বিগত পনের বছর ধরে এই এলাকার রাস্তার খুবই খারাপ অবস্থা৷ যে রাস্তার উপর দিয়ে স্কুলে যেতে হয় বাচ্চাদের৷ হাসপাতাল রয়েছে পাশেই৷ রুগীকেও আনতে হয় এই পথেই৷ প্রতিশ্রুতির পর প্রতিশ্রুতি মিলেছে৷ মেলেনি শুধু ভাল রাস্তা৷

নিমতলা এলাকাটি শাসকদল তৃণমুলের৷ তবে সূত্র মারফৎ খবর রাস্তার এই করুণ অবস্থার বড় কারণের মধ্যে রয়েছে গোষ্ঠি দন্দও৷ পঞ্চায়েত প্রধান প্রতিশ্রুতির পর প্রতিশ্রুতি দিয়ে যান রাস্তা হবে৷ কিন্তু তা ভবিষ্যত কালটাই বর্তমান হয়ে দাঁড়িয়েছে এই এলাকায়৷ জানা গিয়েছে দু’কোটি টাকা বরাদ্দ করা হয়েছে এই রাস্তার জন্য কিন্তু আজও তৈরি হয়নি রাস্তা৷ রাস্তার শুরুতেই সাইনবোর্ডও রয়েছে প্রধানমন্ত্রী গ্রাম সড়ক যোজনার৷ সেই সাইনবোর্ডে লেখাও রয়েছে রাস্তা তৈরি শুরু হওয়ার তারিখ ও শেষ হওয়ার তারিখ৷ অর্থাৎ ঠিকাদারের কাজের মেয়াদ ছিল ২০১৭এর নভেম্বরের তিরিশ তারিখ থেকে নভেম্বর ২০১৮এর ২৯ তারিখ পর্যন্ত৷ অর্থাৎ আর প্রায় একমাস বাকি সেই মেয়াদ শেষ হওয়ার কিন্তু রাস্তার এখনও একই হাল৷

এই খবর করতে গিয়েই নিমতলায় পৌঁছলে হামলা হয় সংবাদ মাধ্যমের উপর৷ এদিকে স্থানীয় বাসিন্দারা বলছেন৷ হাঁটা চলা করা যায়না৷ গাড়ি নিয়ে যেতে আরও অসুবিধায় পড়তে হয়৷ এর মধ্যেই ক্যামেরার সামনেই ধরা পড়ল সেই ছবি৷ পড়ে গেলেন একজন৷ এরকমই দিনে কমকরে সাত আটটা গাড়ি পালটি খেয়ে যায় এই এলাকায় বলে অভিযোগ করেছেন স্থানীয় বাসিন্দারা৷ একজন বললেন, “স্থানীয় এমএল এ প্রতিশ্রুতি দিয়ে গিয়েছেন৷ ১৫ দিনে টেম্পোরারি ব্যবস্থা করা হবে বলা হয়েছে৷ কিন্তু কাজ হয়নি৷ আমরা রাস্তা সারানোর জন্য সাইন করেও জমা দিয়েছি৷ কিন্তু কাজ হয়নি৷

তাই আমরা রাস্তায় নামতে বাধ্য হয়েছি৷ হাত জোর করে ক্ষমা চাইছি আমরা সংবাদ মাধ্যমকে সিকিউরিটি দিতে পারিনি৷ এভাবে কতদিন আমরা বঞ্চনার শিকার হব? আমাদের সিকিউরিটি দেওয়ার কি কেউ নেই? ” জানা গিয়েছে যে সংবাদ মাধ্যমের উপর হামলা চালায় তার নাম আজাদ৷

কলাগাছিয়া থেকে ঠাকুরপুকুর অটো সার্ভিস রয়েছে এই এলাকার উপর দিয়েই৷ সেই অটো চালকরাও বলছেন “রাস্তা করলে সবার ভাল হয়৷” একজন বললেন “শাসকদল দুর্নীতি করছে৷” নিমতলা এলাকা৷ তৃণমূলের এলাকা৷ অথচ তৃণমূলের একটি দলের পক্ষ থেকে খবর পেয়েই ওই এলাকায় পৌঁছই আমরা৷ তবুও তৃণমূলের অন্য এক দল এসে সংবাদ মাধ্যমের উপর হামলা করে বলে বলে অভিযোগ৷ পনের বছর ধরে রাস্তা যে অবস্থা তাতে বছর পাঁচেক আগে একটু ইঁট বালি পড়েছিল৷

কিন্তু ফি বছর বর্ষায় যে ভাবে জল জমে ও কাদা জমে তাতে রাস্তার শুধু মাপ টাই রয়েছে৷ আর রয়েছে গোড়ালি ডোবা পিচ্ছিল কাদা৷ আর জায়গায় জায়গায় জমা জল৷ রাস্তা কবে ঠিক হবে কেউ কি জানেন? প্রশ্ন এলাকার মানুষের৷ তবে সে প্রশ্নের উত্তর মেলেনা৷ শুধু যেটা মেলে তা একটাই শব্দ৷ ‘হবে৷’

প্রশ্ন অনেক: দশম পর্ব

রবীন্দ্রনাথ শুধু বিশ্বকবিই শুধু নন, ছিলেন সমাজ সংস্কারকও