বেজিংঃ প্রযুক্তির আশীর্বাদে বর্তমান সময়ে নগদের থেকে ক্যাশলেস লেনদেনেই ভরসা করছেন বিশ্ববাসী। এই আশীর্বাদ থেকে এখন বঞ্চিত নন ভিখারিরাও। কিউআর কোড স্ক্যান করে ই-ওয়ালেটেই ভিক্ষা নিচ্ছেন এখন ভিখারিরা। কি! সব হিসেব তালগোল পাকিয়ে যাচ্ছে! ভাবছেন এ আবার কোন দেশি কথা বাপু! তাহলে বলি আছে বাপু আছে, এমন দেশও আছে। যে দেশে নগদে নয়, ইন্টারনেটে ভিক্ষার কারবার! আমাদের প্রতিবেশী প্রযুক্তি সমৃদ্ধ দেশ চিনের ভিখারিরা এখন কিউআর কোড স্ক্যান করে ই-ওয়ালেটে ভিক্ষা নিচ্ছেন।

কিন্তু কীভাবে সম্ভব প্রশ্ন জাগছে তো? জানা গিয়েছে, সেদেশের ভিখারিরা নাকি নগদে আর ভিক্ষা নিচ্ছেন না৷ প্রযুক্তির সঙ্গে তাল মিলিয়ে তারা ক্যাশলেস লেনদেনের উপর ভরসা করছেন৷ পেটিএমের মতো অ্যাপের মাধ্যমে ভিক্ষা গ্রহণ করছেন তারা৷ সম্প্রতি প্রকাশ্যে এসেছে চিনা ভিখারিদের ভিক্ষা নেওয়ার এই নয়া পন্থা৷ যাকে ঘিরে আন্তর্জাতিক মহলে তৈরি হয়েছে প্রবল কৌতূহল৷ সম্প্রতি প্রকাশিত কয়েকটি ছবিতে দেখা গিয়েছে, সেদেশের প্রত্যেক ভিখারির গলায় ঝোলানো রয়েছে নির্দিষ্ট কিউআর কোডযুক্ত ব্যাজ৷ সেই কোড স্ক্যান করে নিজের ইচ্ছামতো অর্থ ওই ভিখারির ই-ওয়ালেটে ট্রান্সফার করছেন ভিক্ষাদাতারা৷

সূত্রের খবর, নগদহীন লেনদেনের ক্ষেত্রে ভারতে যেমন পেটিএম, ফোন পে’র মতো অ্যাপগুলির ব্যবহার হয়ে থাকে৷ চিনা ভিখারিরা তেমন ব্যবহার করছেন আলি পে অ্যাপ৷ আলিবাবা সংস্থার তৈরি এই আলি পে অ্যাপ। অনেকে আবার ব্যবহার করছেন উইচ্যাট ওয়ালেট৷ সব ক্ষেত্রেই ব্যবহারের নিয়ম একই৷ কিউআর কোড স্ক্যান করে ই-ওয়ালেটে জমা করতে হবে নির্দিষ্ট অর্থ৷ বর্তমানে চিনা ভিখারিদের ভিক্ষা নেওয়ার এই অভিনব পদ্ধতিই মন কেড়েছে নেটিজেনদের৷