স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: রাজ্যের আসন্ন পঞ্চায়েত নির্বাচনে প্রচুর হিংসার অভিযোগ উঠেছে শাসক তৃণমূল কংগ্রেসের বিরুদ্ধে। সবক্ষেত্রেই আক্রান্ত হয়েছে বিরোধী শিবির। এমনই অভিযোগ করা হয়েছে বাম-বিজেপির পক্ষ থেকে।

এই অবস্থায় তৃণমূল নেত্রী তথা রাজ্যের মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ভবিষ্যতের জন্য হুশিয়ার করলেন সিপিএম নেতা শতরূপ ঘোষ। পঞ্চায়েত নির্বাচন উপলক্ষে এক প্রচারসভায় তিনি বলেন, ‘অনন্তকাল রাজ্যে ক্ষমতায় থাকবে না তৃণমূল। একই সঙ্গে চিরকাল মুখ্যমন্ত্রী থাকবেন না মমতা।’

সেই অবস্থার কথা মনে করিয়ে তৃণমূল কংগ্রেসের গুণ্ডাবাহিনীকে হুঁশিয়ারি দিয়ে রাখলেন সিপিএম নেতা শতরূপ ঘোষ। তিনি বলেছেন, “রাজ্যে তৃণমূল কংগ্রেসের শাসনের অবসান ঘটলে মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় দিল্লিতে কোনও পদ পেয়ে যাবেন। কিন্তু যারা তৃণমূলের জন্য গুণ্ডামি করে তাদের কী হবে।”

শাসকদলকে আক্রমণ করে শতরূপ আরও বলেছেন যে কর্মসংস্থানের নামে যুব সম্প্রদায়কে গুণ্ডা তৈরি করেছেন মমতা। মানুষকে ভয় দেখানোটাই রাজ্যের যুব সমাজের কাছে কর্মসংস্থান। রাজ্যে ফের বামেরা ক্ষমতায় আসলে এই সমস্যার সমাধান হবে বলে দাবি করেছেন শতরূপ। তাঁর কথায়, “যারা এখন তৃণমূলের হয়ে গুণ্ডামি করছে ক্ষমতায় এলে আমরা তাদের হাতে জব কার্ড তুলে দেব।”

সমাজে ক্ষমতার হস্তান্তর চিরাচরিত প্রক্রিয়া। ভারতের মাটিতে যার বহু উদাহরণ রয়েছে। শক, হুন, মোঘল, ইংরেজ অনেকেই এদেশে শাসন করেছে। একটা সময় অন্তর অবসান ঘটেছে সব শাসকের। এই নিয়ে বহু বছর আগে লিখে গিয়েছেন স্বয়ং রবি ঠাকুর। পশ্চিমবঙ্গেও এই উদাহরণ রয়েছে। মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের হাত ধরেই অবসান ঘটেছে ৩৪ বছরের বাম শাসনের। সেই একই ধারা তৃণমূলের ক্ষেত্রে বজায় থাকবে না এমনটা কেউ বলতে পারে না।