মুম্বই: চলতি বছর নিতান্তই যদি আইপিএল আয়োজন করা সম্ভব না হয় তাহলে বোর্ড যে বিপুল আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হবে সেটা অজানা নয় কারও। কিন্তু আর্থিক ক্ষতির অংকটা ঠিক কতো, তা সম্পর্কে নিশ্চিত ছিলেন না কেউ। বোর্ড প্রেসিডেন্ট সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় আর্থিক ক্ষতির অংকটা জানালেন অবশেষে। তিনি এও জানান, আইপিএল অনুষ্ঠিত না হলে ইচ্ছের বিরুদ্ধে গিয়ে ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিকে কাটছাঁট করতে হবে।

গত ২৯ মার্চ আইপিএলের ত্রয়োদশ সংস্করণের ঢাকে কাঠি পড়ার কথা থাকলেও বিশ্ব মহামারী নোভেল করোনা ভাইরাসের জেরে আপাতত অনির্দিষ্টকালের জন্য স্থগিত ফ্র্যাঞ্চাইজি ক্রিকেট টুর্নামেন্ট। বিভিন্ন দেশ সীমান্ত পারাপারে নিষেধাজ্ঞা জারি রাখায় চলতি বছর টুর্নামেন্ট আয়োজনে প্রবল অনিশ্চয়তা। অক্টোবরে টি-২০ বিশ্বকাপের আগে আয়োজনের পথ খোলা রাখা হলেও নিতান্ত টুর্নামেন্ট আয়োজন সম্ভব না হলে কী প্রভাব পড়তে পারে? সে বিষয়ে সম্প্রতি মিড ডে’কে এক সাক্ষাৎকার প্রদান করেন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট।

সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায় সেখানে বলেন, ‘‘আমাদের আর্থিক পরিস্থিতি খতিয়ে দেখতে হবে। আগে দেখতে হবে আমাদের হাতে কী পরিমাণ অর্থ রয়েছে, তারপরেই কোনও সিদ্ধান্ত নিতে হবে। আইপিএল আয়োজন করতে না পারলে বোর্ডকে প্রায় ৪ হাজার কোটি টাকা আর্থিক ক্ষতির সম্মুখীন হতে হবে। অর্থাৎ ক্ষতির অঙ্কটা বিপুল।’ ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিকের বিষয়ে তাঁর সংযোজন, ‘আইপিএলে আমরা যদি আয়োজন করতে পারি তাহলে পারিশ্রমিকে কোনওরকম কাটছাঁটের প্রয়োজন হবে না। আমরা সামলে নিতে পারব পুরো বিষয়টা।’

একইসঙ্গে বছরের শেষে অস্ট্রেলিয়া সফরে ৪ ম্যাচের পরিবর্তে ক্রিকেট অস্ট্রেলিয়া ভারতীয় বোর্ডকে যে ৫ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলার প্রস্তাব দিয়েছে সে ব্যাপারেও নিজের মতামত জানান বোর্ড প্রেসিডেন্ট। ভারতের অস্ট্রেলিয়া সফর আয়োজন করা যদি সম্ভব হয় সেক্ষেত্রে প্রধান শর্ত হিসেবে ক্রিকেটারদের ১৪দিনের আইসোলেশন বাধ্যতামূলক। সম্প্রতি এমনটাই জানিয়েছেন বোর্ড কোষাধ্যক্ষ অরুণ ধুমাল।

তাই বোর্ড প্রেসিডেন্টের কথায়, ‘আমার মনে হয় না ৫ ম্যাচের টেস্ট সিরিজ খেলা সম্ভব হবে। টেস্ট সিরিজের পর সংক্ষিপ্ত ওভারের সিরিজ রয়েছে আবার গাইডলাইন অনুযায়ী ক্রিকেটারদের ১৪দিনের আইসোলেশন আবশ্যক। সবমিলিয়ে সফর অনেক দীর্ঘায়িত হবে।’

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV