নয়াদিল্লি: সরকার অনুমতি দিলে অগাস্টে শ্রীলঙ্কার মাটিতে গিয়ে সিরিজ খেলতে অসুবিধা নেই ভারতীয় ক্রিকেট দলের। শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডকে ঠিক এমনটা জানিয়েই বিসিসিআই আশ্বস্ত করেছে বলে দাবি করা হয়েছে একটি সূত্রে।

প্রাথমিকভাবে চলতি জুন মাসেই দ্বীপরাষ্ট্রের মাটিতে গিয়ে ৩টি টি২০ এবং সমসমসংখ্যক ওয়ান-ডে ম্যাচ খেলার কথা ছিল কোহলিদের। কিন্তু অতিমারী করোনা ভাইরাসের জেরে পূর্ব নির্ধারিত আন্তর্জাতিক ক্রীড়সূচিতে ব্যাপক ব্যাঘাত ঘটে। গত মার্চ মাস থেকে বিশ্বজুড়ে অন্যান্য স্পোর্টস ইভেন্টের মতো বন্ধ বাইশ গজও। তবে খারাপ সময় কাটিয়ে ফের ক্রিকেট দিনের আলো দেখছে। টেস্ট সিরিজ খেলতে গতকাল অর্থাৎ মঙ্গলবারই ইংল্যান্ডের মাটিতে পা দিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দল।

যা স্বাভাবিকভাবেই ভারতের বিরুদ্ধে সিরিজ আয়োজনে আশার আলো দেখিয়েছে শ্রীলঙ্কা ক্রিকেট বোর্ডকে। তারাও এখন কোহলিদের আপ্যায়ণ করার জন্য দেশের ক্রীড়ামন্ত্রকের অনুমোদনের অপেক্ষায়। দ্বীপরাষ্ট্রের ক্রিকেট বোর্ডের এক আধিকারিক স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে জানিয়ছেন, ‘আমরা স্টেডিয়ামের ৩০ থেকে ৪০ শতাংশ পূর্ণ করে খেলা চালু করতে চাই। তাতে দর্শকদের একে অপরের মধ্যে এক মিটার দূরত্ব বজায় থাকবে। যদিও চুড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেবেন স্বাস্থ্য আধিকারিকেরাই। আমরা তাদের নির্দেশিকা মেনেই এগোব।’

উল্লেখ্য, মঙ্গলবার এক ভিন্ন আবহে টেস্ট সিরিজ খেলতে ইংল্যান্ডের মাটিতে পা রাখল ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট দল। সমস্ত নির্দেশিকা-সতর্কীকরণ মেনে টেস্ট সিরিজ শুরুর এক মাস আগেই ইংল্যান্ড পৌঁছে গেল ক্যারিবিয়ানরা। ১৪ জনের টেস্ট স্কোয়াড ছাড়াও অতিরিক্ত ১১ জন রিজার্ভ ক্রিকেটারকে নিয়ে মঙ্গলবার ইংল্যান্ডের মাটি ছুঁল ক্যারিবিয়ানদের বিমান। যেহেতু বায়ো-সিকিওর পরিবেশে হবে খেলা তাই স্বাভাবিকভাবেই বাইরের কারও সংস্পর্শে আসতে পারবেন না ক্রিকেটাররা। সুতরাং আগাম সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে নেট বোলার থেকে শুরু করে রিজার্ভ ক্রিকেটারদেরও দলের সঙ্গে ইংল্যান্ড পাঠিয়েছে ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ড।

ম্যাঞ্চেস্টারে গোটা ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলকে কোয়ারেন্টাইনে রাখা হবে তিন সপ্তাহের জন্য। যদিও কোয়ারেন্টাইন পিরিয়ড চলাকালীন অনুশীলন করার ক্ষেত্রে কোনওরকম নিষেধাজ্ঞা নেই তাঁদের। ৮ জুলাই সাউদাম্পটনের অ্যাজিয়াস বোলে সিরিজের প্রথম টেস্টে সফরকারী ক্যারিবিয়ানদের মুখোমুখি হবে ইংল্যান্ড। ১৬ ও ২৪ জুলাই থেকে যথাক্রমে সিরিজের দ্বিতীয় এবং তৃতীয় টেস্ট দু’টি অনুষ্ঠিত হবে ম্যাঞ্চেস্টারের ওল্ড ট্র্যাফোর্ডেই।

পপ্রশ্ন অনেক: চতুর্থ পর্ব

বর্ণ বৈষম্য নিয়ে যে প্রশ্ন, তার সমাধান কী শুধুই মাঝে মাঝে কিছু প্রতিবাদ