কলকাতা: টেস্টে মুরলি বিজয় ও শিখর ধাওয়ানের ওপেনিং জুটি এখন অতীত। বিজয় দলে নেই, ধাওয়ানও বাদ পড়েছেন টেস্ট দল থেকে। মাঝে লোকেশ রাহুল সাময়িকভাবে পসরা জমিয়েছিলেন ওপেনার হিসেবে। তবে রাজত্ব কায়েম করতে পারেননি তিনিও। সম্ভাবনা দেখিয়েছিলেন পৃথ্বী শ। চোট ও নিজের ভুলে আপাতত জাতীয় দলের বাইরে রয়েছেন তরুণ মুম্বইকর। ঘরোয়া ক্রিকেটে অত্যন্ত সফল ময়াঙ্ক আগরওয়াল ন্যূনতম সুযোগেই বিশেষজ্ঞ ওপেনার হিসেবে নির্ভরতা দিয়েছেন দলকে। প্রয়োজন ছিল তাঁর যথাযথ একজন পার্টনারের। মিডল অর্ডারের ট্রাফিক জ্যামে আটকে পড়া রোহিত শর্মাকে নিছক প্রথম একাদশে জায়গা করে দিতেই টেস্টে ওপেন করতে পাঠানোর ভাবনা মাথায় আসে নির্বাচকদের।

সুযোগটা দু’হাতে লুফে নিয়েছেন হিটম্যান। দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে তিন ম্যাচের টেস্ট সিরিজে একটি ডাবল সেঞ্চুরিসহ তিনটি শতরান করে যেভাবে জাঁকিয়ে বসলেন রোহিত, তাতে অদূর ভবিষ্যতে তাঁকে ওপেনিং স্লট থেকে সরিয়ে দেওয়া দুষ্কর হবে। তবে জাতীয় নির্বাচকদের কাছে সর্বপ্রথম সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ই দাবি তুলেছিলেন রোহিতকে টেস্টে ওপেন করানোর। নিছক প্রাক্তন তারকা হিসেবেই সংবাদমাধ্যমে নিজের মতামত প্রকাশ করেছিলেন মহারাজ। জোর দিয়ে বলেছিলেন যে, রোহিতের মত ব্যাটসম্যানকে মাঠের বাইরে রেখে টেস্ট দল নামানো অত্যন্ত বোকামি। প্রয়োজনে ওপেনার হিসেবে ব্যবহার করে তাঁকে খেলানা উচিত। সৌরভের ধারণা যে কতটা সত্যি, তা প্রমাণ হয়ে যায় দক্ষিণ আফ্রিকার বিরুদ্ধে তিন ম্যাচের এই টেস্ট সিরিজে।

আসলে ফর্মে থাকা দলের আগ্রাসী ব্যাটসম্যানকে সব ফর্ম্যাটে কিভাবে ব্যবহার করতে হয়, তা সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের থেকে ভালো আর কেইবা জানতে পারে। বীরেন্দ্র সেহওয়াগের মতো আগ্রাসী ব্যাটসম্যানকে মিডল-অর্ডার থেকে তুলে নিয়ে এসে সৌরভই ভারতীয় ক্রিকেটকে উপহার দিয়েছিলেন বীরুর মত একজন ধ্বংসাত্মক টেস্ট ওপেনার। টেস্ট ক্রিকেটে ওপেন করার জন্য যে ধৈর্য্য ও অধ্যাবসায় দরকার হয় ব্যাটসম্যানদের, তার কোনওটাই সেহওয়াগের মতো ধ্বংসাত্মক ক্রিকেটারের ছিল বলে মনে করতো না ভারতীয় ক্রিকেটমহল। তা সত্ত্বেও যেভাবে টেস্ট ওপেনারের সংজ্ঞাটাই বদলে দিয়েছিলেন বীরু, তা এককথায় দৃষ্টান্তে পরিণত হয়েছে। রোহিত শর্মার ওপেনার হিসেবে সাফল্যকে এখন তুলনা করা হচ্ছে সেহওয়াগের সঙ্গে।

টেস্ট ওপেনার হিসেবে রোহিত শুরুতেই সাফল্য পাওয়ায় যারপরনাই খুশি সৌরভ। নতুন বিসিসিআই প্রেসিডেন্ট স্পষ্ট জানাচ্ছেন যে, টেস্ট ওপেনার হিসেবে হিটম্যান অনেকদূর যাবে। সৌরভের কথায়, ‘আগেই বলেছিলাম টেস্ট ওপেনার হিসেবে সফল হতে পারে রোহিত। ভালো লাগছে ও সুযোগটা কাজে লাগানোয়। আমি নিশ্চিত টেস্ট ওপেনার হিসেবে নিজেকে আরও সফলভাবে প্রতিষ্ঠিত করবে রোহিত।’