মুম্বই: আইপিএল শেষ হলেই বিশ্বকাপের ঢাকে কাঠি৷ ৩০ মে ইংল্যান্ডের মাটিতে বসতে চলেছে পঞ্চাশ ওভারের ক্রিকেট বিশ্বকাপের আসর৷ ইংল্যান্ডের বিমানে ভারতের ফাইনাল ফিফ্টিন চয়েস কারা হচ্ছেন সেই নিয়েই ভারতীয় ক্রিকেটমহলে চলছে জোর আলোচনা৷ কোহলির দলে চার নম্বর এখনও পাকা নয়৷ সেই সঙ্গে শামি-বুমরাহের পর তৃতীয় পেসার কে হবেন? সেই নিয়েও আলোচনা তুঙ্গে৷ সব উত্তর খুঁজছে নির্বাচকদের চোখ এখন আইপিএলে৷

আরও পড়ুন- কলকাতা নাইট রাইডার্সের চূড়ান্ত স্কোয়াড

বিশ্বকাপের আগে অস্ট্রেলিয়ার বিরুদ্ধে ভারতের শেষ ওয়ান ডে সিরিজে কোহলি স্পষ্ট জানিয়ে দিয়েছিলেন আইপিএল, বিশ্বকাপের দল নির্বাচনে কোনও প্রভাব ফেলবে না৷ দলের চার নম্বর জায়গা এখনও নিশ্চিত না হওয়ায় বিকল্প খুঁজতে বোর্ড অবশ্য কোহলির উল্টো পথেই হাঁটছে৷ এপ্রিলের মাঝেই বিশ্বকাপের চূড়ান্ত দল ঘোষণা করতে হবে৷ নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক এক বোর্ড কর্তা জানাচ্ছেন, বিশ্বকাপে পাকাপাকি চার নম্বর খুঁজতেই তাই  আইপিএলের প্রথম তিন সপ্তাহের দিকে তাকিয়ে থাকছেন নির্বাচকরা৷

দলের চার নম্বর ব্যাটসম্যানের লড়াইয়ে প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী চার ব্যাটসম্যান৷ অম্বতি রায়ডু সাম্প্রতিক সময় যথেষ্ট সুযোগ পেলেও এখন ধারাবাহিক নয়৷ লোকেশ রাহুল, ঋষভ পন্তরাও বিশ্বকাপের আগের সুযোগগুলোই বড় রান হাঁকাতে ব্যর্থ৷ সেকারণেই নির্বাচকদের মাথায় ঘুরতে অভিজ্ঞ অজিঙ্ক রাহানের নাম৷

আরও পড়ুন- আইপিএল চলাকালীন রাজনৈতিক বিজ্ঞাপণ নয়

বিদেশের মাটিতে রাহানের সাফল্য রয়েছে৷ যদিও শেষ এক বছরে ওয়ান ডে দল নেই অজিঙ্ক৷ সেক্ষেত্রে একটা দুর্দান্ত আইপিএল মরশুম অজিঙ্ককে বিশ্বকাপ দলে সুযোগ করে দিতে পারে৷ তরুণদের মধ্যে দিল্লিওয়ালা দুই ক্রিকেটারও চার নম্বরের জন্য লড়াই চালাচ্ছেন৷ টেস্ট অভিষেকে নজর কেড়েছিলেন পৃথ্বী শ৷ এবার বিশ্বকাপের দলে সুযোগের অপেক্ষায় মরিয়া তরুণ ডানহাতি৷ পৃথ্বীর আইপিএল অধিনায়ক শ্রেয়স আইয়ারও চার নম্বরের যোগ্য দাবীদার৷ ইতিমধ্যেই ভারতীয় দলে চার নম্বরের সমস্যা দূর করতে শ্রেয়সকে পরীক্ষা করে নিতে বলেছেন অজি প্রাক্তনি রিকি পন্টিং৷ পন্টিংয়ের এক সময়ের সতীর্থ ম্যাথু হেডেন অাবার চার নম্বরে রায়ডুকে যোগ্য মনে করছেন৷

আরও পড়ুন- ‘তোমরা আমাদের দুয়ো দাও, আমরা তোমাদের জন্যই মাঠে নামব’

অন্যদিকে দলের ভারসাম্যের জন্য তৃতীয় পেসারের জায়গায় বাঁ-হাতি কোনও পেসারের পছন্দ নির্বাচকদের৷ সেক্ষেত্রে হায়দরাবাদের জার্সিতে একটা ভালো মরশুম সুযোগ দিতে পারে খলিল আহমেদকে৷ নির্বাচকদের সব চোখ এখন আইপিএলে৷