মিউনিখ: শনিবার লেওয়ানদোস্কিরা (Robert Lewandowski) মনচেনগ্ল্যাডবাচের (Borussia Monchengladbach) মুখোমুখি হওয়ার আগে দ্বিতীয়স্থানে থাকা আরবি লেইপজিগ (RB Leipzig) মুখোমুখি হয়েছিল বরুসিয়া ডর্টমুন্ডের (Borussia Dortmund)। আরবি লেইপজিগ কোনওভাবে পয়েন্ট নষ্ট করা মানে মাঠে নামার আগেই চ্যাম্পিয়ন হয়ে যেত বায়ার্ন মিউনিখ (Bayern Munich)। বাস্তবে সেটাই হল। জ্যাডন স্যাঞ্চোর (Jadon Sancho) জোড়া গোলে ডর্টমুন্ড লেইপজিগকে ৩-২ গোলে হারাতেই টানা নবম বার জার্মান সেরা হল বায়ার্ন মিউনিখ। সর্বমোট ৩১ বার।

তিন ম্যাচ হাতে থাকতেই রেকর্ড বর্ধিত করে টানা নবমবারের জন্য বুন্দেসলিগার (Bundesliga) শিরোপা জিতে নিল বাভারিয়ানরা। ইউরোপ সেরার খেতাব ধরে না রাখতে পারলেও বিদায়বেলায় হান্সি ফ্লিক’কে (Hans Flick) নিরাশ করলেন না লেওয়ানদোস্কি,মুলাররা।

ঘরোয়া খেতাব জয় অভ্যাসে পরিণত করে ফেলেছে বায়ার্ন। তবে এবার চ্যাম্পিয়নশিপের দৌড়টা অনেকটা লম্বা হয়েছে তুলনায়। এদিন লেইপজিগ জিতলে এবং বায়ার্ন পয়েন্ট খোয়ালে অপেক্ষা দীর্ঘায়িত হত। কিন্তু মাঠে তা হল না। লেইপজিগ তো হারলোই, খেতাব জয় নিশ্চিত করার পর মাঠে নেমে আবার মনচেনগ্ল্যাডবাচকে হাফ-ডজন গোল দিল ফ্লিকের ছেলেরা। হ্যাটট্রিক করলেন বায়ার্নের পোলিশ স্ট্রাইকার লেওয়ানদোস্কি। বুন্দেসলিগার ইতিহাসে সর্বাধিক ১৪ বার হ্যাটট্রিক করে রেকর্ড বাড়িয়ে নিলেন লেওয়ান।

এদিন ম্যাচের দ্বিতীয় মিনিটে গোলের খাতা খোলেন পোলিশ স্ট্রাইকার। ৩৪ মিনিটে তাঁর দ্বিতীয় গোলটি দুর্দান্ত বাইসাইকেল-কিকে। দ্বিতীয়ার্ধে পেনাল্টি থেকে হ্যাটট্রিক পূর্ণ করেন ২০২০ ‘ফিফা দ্য বেস্ট’। বাকি গোলগুলি করেন থমাস মুলার (Thomas Muller), কিংসলে কোমান (Kingsley Coman) এবং লেরয় সেন (Leroy Sane)। প্রথমার্ধে ৪-০ এগিয়ে ছিল বায়ার্ন। দ্বিতীয়ার্ধে বিপক্ষের কফিনে আরও দু’টি গোল যোগ করে তারা। নির্ধারিত সময়ের শেষ ১৫ মিনিট দশজনে খেলে বাভারিয়ানরা। ৭০ মিনিটে পরিবর্ত নেমে ৭৫ মিনিটে লাল কার্ড দেখেন নিয়ানজৌ। যদিও সেই ঘটনা বায়ার্নের জয়ের উৎসব ফিকে করতে পারেনি।

এই জয়ের ফলে ৩২ ম্যাচে ৭৪ পয়েন্ট নিয়ে খেতাব নিশ্চিত করলেন লেওয়ানদোস্কিরা। দ্বিতীয়স্থানে থাকা লেইপজিগের পয়েন্ট সমসংখ্যক ম্যাচে ৬৪। উল্লেখ্য, চলতি মরশুমের পরেই বায়ার্নের দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি নিচ্ছেন হান্সি ফ্লিক। অর্থাৎ,বায়ার্নের ডাগ-আউটে ফ্লিকের মেয়াদ আর মাত্র দু’ম্যাচ। আগামী মরশুম থেকে ফ্লিকের জুতোয় পা গলাবেন লেইপজিগের বর্তমান কোচ জুলিয়ান নাগেলসম্যান (Julian Nagelsmann)। অর্থাৎ, তাঁর কোচিং’য়ে টানা দ্বিতীয়বার বুন্দেসলিগা জিতে ফ্লিককে বিদায়ী উপহার দিলেন মুলার-ন্যুয়েররা।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.