স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: ভোট পরবর্তী হিংসা অব্যাহত বারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রে৷ ফের উত্তপ্ত শ্যামনগর৷ কাঁচড়াপাড়া, বারাকপুর, টিটাগরের পর ভোট পরবর্তী সন্ত্রাসের ঘটনা ঘটল উত্তর ২৪ পরগণার শ্যামনগরে। বুধবার রাতে একদল দুষ্কৃতীদের হাতে মারাত্মক জখম হন এক তৃণমূল কর্মী।

জানা গিয়েছে, ওই তৃণমূল কর্মীর নাম রাজু সিং। তাকে জগদ্দল থানার ২২ নম্বর রেল গেট এলাকায় ধারালো অস্ত্র দিয়ে কোপানো হয় বলে অভিযোগ। দুষ্কৃতীরা বুধবার সন্ধ্যায় ওই তৃণমূল কর্মীকে একা পেয়ে কুপিয়েছে বলে অভিযোগ। স্থানীয় বাসিন্দারা রক্তাক্ত অবস্থায় ওই যুবককে উদ্ধার করে প্রথমে বারাকপুর বিএন বসু মহকুমা হাসপাতালে নিয়ে যায়৷ সেখান থেকে তাকে কলকাতার পি জি হাসপাতালে স্থানান্তরিত করা হয়।

জগদ্দল থানার পুলিশ ঘটনার তদন্তে নেমেছে। এই ঘটনায় পুলিশ এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেফতার করতে পারেনি। চিকিৎসকরা জানিয়েছেন ওই যুবকের অবস্থা আশংকাজনক।

সোমবার কিছু বিক্ষিপ্ত ঘটনা ছাড়া মোটের ওপর বেশ শান্তিপূর্ণ ভাবেই মিটেছিল বারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের নির্বাচন পর্ব। কিন্তু ভোট মিটে যাওয়ার পরও অশান্ত হয়ে উঠেছিল বারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের কিছু এলাকা। ভোট পরবর্তী সন্ত্রাস দেখা গিয়েছিল কাঁচরাপাড়া ডাঙ্গাপাড়া এলাকাতেও।

ভোট শেষের পর রাত সাড়ে বারোটা নাগাদ বারাকপুর লোকসভা কেন্দ্রের কাঁচরাপাড়া ডাঙ্গাপাড়া এলাকার জ্যোতি সংঘ ক্লাব লক্ষ করে বোমা মারা হয় বলে অভিযোগ। স্থানীয় বাসিন্দাদের অভিযোগ রাতে ক্লাব বন্ধ হয়ে যাওয়ার পর দুজন দুষ্কৃতী স্কুটিতে করে আসে এবং ওই ক্লাবটিকে লক্ষ করে পর পর দুটি বোমা ছোঁড়া হয় বলে অভিযোগ। দুটি বোমাই গিয়ে ক্লাবের দরজায় লাগে ফলে ক্লাবের বন্ধ দরজার এক পাশ ভেঙে যায় বলে দাবি এলাকাবাসীর।