স্টাফ রিপোর্টার, বারাকপুর: রবিবার মহা সমারোহের সাথে দ্বারোদ্ঘাটন ও নামকরণ হয়ে গেলো উত্তর ২৪ পরগনার ব্যারাকপুর শিল্পাঞ্চলের বহু প্রতীক্ষিত ব্যারাকপুর স্টেডিয়ামের। রবিবার দুপুরে পশ্চিমবঙ্গ সরকারের ক্রীড়া ও যুব কল্যাণ মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস স্টেডিয়ামের মাঠে ফুটবলে শট মেরে আনুষ্ঠানিক ভাবে এই স্টেডিয়ামের খেলার সূচনা করেন।

এই দিন অরূপ বাবু স্টেডিয়ামে খেলার সূচনার সাথে সাথেই বিখ্যাত সাহিত্যিক বিভূতিভূষণ বন্দ্যোপাধ্যায়ের নামে এই স্টেডিয়ামের নামকরনও করেন। প্রায় ১৩ কোটি টাকা ব্যায় করে ৩ বছরের প্রচেষ্টায় গড়ে তোলা হয়েছে স্টেডিয়ামটিকে। নতুন এই স্টেডিয়ামটি দেখাশোনার দায়িত্ব থাকবে ব্যারাকপুর পুরসভা উপর।

আরও পড়ুন : পরবর্তী আশঙ্কার কথা ভেবেই বাংলাদেশের আকাশে উড়ছে যুদ্ধবিমান?

উত্তর ২৪ পরগনার প্রশাসনিক বৈঠকে অংশ নিতে এসে মুখ্যমন্ত্রী উদ্বোধন করে গেছিলেন এই ব্যারাকপুর স্টেডিয়ামের৷ আজ সেই স্টেডিয়ামে খেলার সূচনা করলেন মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস। রবিবার ইস্টবেঙ্গল ও মোহনবাগান জুনিয়ার দলের মধ্যে প্রীতি ম্যাচ অনুষ্ঠিত হওয়ার মধ্যে দিয়েই ফুটবল খেলা শুরু হল ব্যারাকপুর স্টেডিয়ামে।

৮ বিঘা জমির উপর তৈরি অত্যাধুনিক মানের এই নতুন স্টেডিয়ামে ৬ হাজার দর্শক বসে খেলা দেখতে পারবেন। আগামী দিনে এই স্টেডিয়ামে ফ্লাড লাইটের ব্যবস্থা করা হবে এবং তার জন্য টেন্ডার করা হয়েছে যাতে বড় বড় ফুটবল দলগুলো এই স্টেডিয়ামে অনুশীলন করতে পারেন৷ বা বড় বড় দলের ম্যাচ এখানে করানো যায়৷

আরও পড়ুন : ‘একটার পালটা ২০টা পরমাণু বোমায় পাকিস্তানকে নিকেশ করতে পারে ভারত’

তিনি আরো জানান পশ্চিমবঙ্গ সরকার রাজ্যে ছোট বড়ো প্রায় ৮৪টা যে স্টেডিয়াম গড়ে তুলছেন তার উদ্দেশ্যই হলো ক্রীড়া ক্ষেত্রে নতুন নতুন প্রতিভা খুঁজে বার করা৷ এই বাংলা যেমন সব ক্ষেত্রে এগিয়ে গেছে খেলাধুলাতেও যাতে সমান ভাবে এগিয়ে যায় সেটার ব্যবস্থা করা।

সেই সঙ্গে তিনি ব্যারাকপুরে পুরসভার চেয়ারম্যানকে ব্যারাকপুরে একটি ফুটবল অ্যাকাডেমি যাতে গড়ে তোলা যায় তারও চেষ্টা করতে অনুরোধ করেন। এই দিনের অনুষ্ঠানে মন্ত্রী অরূপ বিশ্বাস ছাড়াও উপস্থিত ছিলেন ব্যারাকপুর পুরসভার চেয়ারম্যান উত্তম দাস, ব্যারাকপুরের বিধায়ক শীলভদ্র দত্ত, সাংসদ দীনেশ ত্রিবেদী, পানিহাটির বিধায়ক তথা বিধানসভার মুখ্য সচেতক নির্মল ঘোষ সহ বিশিষ্ট ব্যক্তিরা।