নয়াদিল্লি: রাজ্যের ঐতিহাসিক বর্ধমান স্টেশনের নাম বদলাতে চলেছে৷ স্বাধীনতা সংগ্রামী বটুকেশ্বর দত্তের নাম অনুসারে নামকরণ হতে চলেছে বর্ধমানের৷ এই বর্ধমান জেলাতেই জন্ম বটুকেশ্বরের৷ তবে পরে বাড়ি বদলিয়ে চলে যান বিহারের পাটনাতে৷ তবে তাঁর জন্মস্থানকে স্মরণীয় করে রাখতে বর্ধমান স্টেশনের নাম বদলানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে কেন্দ্র৷

বিহারের বিজেপি সভাপতি ও কেন্দ্রীয় মন্ত্রী নিত্যানন্দ রাই শনিবার একথা ঘোষণা করেন৷ এদিন কেন্দ্রীয় মন্ত্রী বিহারের জাক্কানপুর এলাকায় স্বাধীনতা সংগ্রামী বটুকেশ্বর দত্তের বাড়ি পরিদর্শন করেন৷ এই বাড়িতেই স্বাধীনতার পর নিজের বাকি জীবন কাটিয়েছিলেন বটুকেশ্বর৷

আরও পড়ুন : বাঁদর থেকে মানুষ নয়, ডারউইনের বিবর্তনের তত্ত্ব উড়িয়ে দিলেন সাংসদ

নিত্যানন্দ রাইয়ের সঙ্গে ছিলেন আরেক বিজেপি নেতা শিবরাজ সিং চৌহান৷ বটুকেশ্বর দত্তের মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে স্বাধীনতা সংগ্রামীর কন্যা ভারতী বাগচির সঙ্গে দেখা করেন এই দুই নেতা৷ উল্লেখ্য, নয়াদিল্লির এইমসের কাছে একটি অভিজাত কলোনির নামাঙ্করণ করা হয়েছে এই স্বাধীনতা সংগ্রামীর নামে৷ ১৯৬৫ সালে এখানেই শেষ নি:শ্বাস ত্যাগ করেছিলেন বটুকেশ্বর দত্ত৷

১৯১০ সালে বর্ধমান জেলায় জন্মগ্রহণ করেন বটুকেশ্বর৷ বয়সকালে যুক্ত হন হিন্দুস্তান সোশ্যালিস্ট রিপাবলিকান অ্যাসোসিয়েশনের সঙ্গে৷ এই সংগঠন চালাতেন ভগৎ সিংয়ের অন্যতম সঙ্গী চন্দ্রশেখর আজাদ৷ বিপ্লবী কাজকর্ম চালাতে গিয়ে আজীবন কারাবাসে দণ্ডিত হন বটুকেশ্বর দত্ত৷ তাঁকে পাঠানো হয় আন্দামান নিকোবর দ্বীপের কুখ্যাত জেলে৷

স্বাধীনতার পরে ছাড়া পান বটুকেশ্বর দত্ত৷ পরে পাটনায় বাস করতে শুরু করেন৷ সঙ্গে ছিলেন স্ত্রী অঞ্জলি৷