প্রাগ: রেকর্ড আর লিওনেল মেসি যে হরিহর আত্মা সেকথা বলার অপেক্ষা রাখে না। আর সেটা যদি হয় বার্সেলোনার জার্সিতে তাহলে তো কথাই নেই। বুধবার রাতে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের ম্যাচে স্লাভিয়া প্রাগের বিরুদ্ধে এক অনন্য নজির গড়লেন আর্জেন্তাইন সুপারস্টার। চ্যাম্পিয়ন্স লিগের প্রথম ফুটবলার হিসেবে টানা ১৫টি মরশুমে জালে বল জড়ানোর নজির গড়লেন বার্সার নয়নের মনি। আর মেসির মাইলস্টোন গড়ার দিনে স্লাভিয়াকে ২-১ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের গ্রুপ-‘এফ’এ শীর্ষে উঠে এল আর্নেস্তো ভালভের্দের ছেলেরা।

স্লাভিয়া ডিফেন্সের গলদের সুযোগ নিয়ে ম্যাচের তিন মিনিটের মধ্যেই দলকে এগিয়ে দেন মেসি। বক্সের মধ্যে আর্থারের পাস থেকে বাঁ-পায়ের দর্শনীয় শটে স্কোরলাইন ১-০ করেন আর্জেন্তাইন তারকা। পালটা ২০ মিনিটে বার্সেলোনার ডিফেন্সিভ গলদের সুযোগ নিয়ে গোলের খুব কাছে পৌঁছে যায় স্লাভিয়া। কিন্তু বার্সেলোনার তিনকাঠির নীচে জ্যান বোরলির শট বাঁচিয়ে ত্রাতা হয়ে ওঠেন জার্মান গোলরক্ষক টার স্টিগেন।

এখানেই শেষ নয়। পিছিয়ে থেকে নিষ্প্রভ বার্সার রক্ষণদুর্গে বারবারই হানা দিয়ে পরীক্ষা নেওয়ার চেষ্টা করেন লুইকাস ম্যাসোপাস্ট-পিটার ওলায়িঙ্কারা। কিন্তু ডেডলক খুলতে পারেনি বেলজিয়ামের দলটি। উলটোদিকে প্রথমার্ধে আর গোল করে উঠতে পারেনি লা-লিগা চ্যাম্পিয়নরাও। ফলে এক গোলে এগিয়ে থেকেই লকাররুমে যায় ভালভের্দের দল। তবে বিরতি থেকে ফিরে এসেও বার্সেলোনা রক্ষণের উপর চাপ বজায় রাখে স্লাভিয়া। ৫০ মিনিটে ফলও মিলে যায় হাতেনাতে। দলগত প্রচেষ্টার ফসল তুলে দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে জ্যান বোরলির গোলে সমতায় ফেরে বেলজিয়ামের দলটি।

কিন্তু ৫৭ মিনিটে ওলায়িঙ্কার আত্মঘাতী গোলে ম্যাচে ফের পিছিয়ে পড়ে স্লাভিয়া। মেসির ফ্রি-কিক থেকে নেওয়া শট গোললাইন অতিক্রম করার মুখে গোল লক্ষ্য করে শট নেন সুয়ারেজ। সেই শট স্লাভিয়া ডিফেন্ডারের গায়ে লেগে প্রতিহত হয়ে ঢুকে যায় গোলে। আত্মঘাতী সেই গোলই বার্সেলোনাকে তিন পয়েন্ট এনে দেয় ম্যাচে। ৩ ম্যাচে ৭ পয়েন্ট নিয়ে গ্রুপের শীর্ষে কাতালান ক্লাব।

লিগের অন্য মাচে ঘরের মাঠে এদিন বরুসিয়া ডর্টমুন্ডকে ২-০ গোলে পরাজিৎ করে ইন্টার মিলান। দুই অর্ধে ইন্টারের হয়ে এদিন গোলদুটি করেন লউতারো মার্টিনেজ ও অ্যান্তোনিও কান্দ্রেভা।