বার্সেলোনা: আপফ্রন্টে ছিলেন না দলের ভরসার স্থলপাত্র লিওনেল মেসি। মেসির মতোই ঊরুর চোটে সাইডলাইনে ছিলেন উইঙ্গার ওসমানে দেম্বেলে। তবে প্রথম একাদশের দুই ফুটবলারকে ছাড়াই চলতি মরশুমে অ্যাওয়ে ম্যাচে জয়ের খরা কাটাল বার্সেলোনা। অ্যাওয়ে ম্যাচে গেটাফে’কে এদিন ২-০ গোলে পরাজিত করল কাতালান ক্লাবটি। জোড়া গোলে কোচ আর্নেস্তো ভালভের্দের স্বস্তি এনে দিলেন লুইস সুয়ারেজ ও জুনিয়র ফিরপো।

গ্রুপ শীর্ষে থাকা রিয়াল মাদ্রিদের চেয়ে চার পয়েন্ট পিছিয়ে থেকে শনিবার গেটাফের বিরুদ্ধে খেলতে নামে বার্সা। সবধরনের প্রতিযোগীতা মিলিয়ে শেষ ন’টি অ্যাওয়ে ম্যাচে জয় অধরা ছিল তাদের। স্বাভাবিকভাবেই কিছুটা হলেও চাপে ছিল কাতালান ক্লাবটি। ঘরের মাঠে এদিন শুরু থেকেই ডিফেন্ডিং চ্যাম্পিয়নদের রক্ষণকে পরীক্ষায় ফেলতে চেষ্টা করে গেটাফে। পালটা গেটাফে রক্ষণে ঢুকে বারদু’য়েক গোলের দরজায় কড়া নেড়ে আসেন কার্লেস পেরেজ ও লুইস সুয়ারেজ।

অ্যাঞ্জেল রড্রিগেজের একটি দুরন্ত প্রয়াস রুখে দিয়ে বার্সেলোনাকে লড়াইয়ে রাখেন দুর্গের শেষ প্রহরী টার স্টিগেন। এরপর ৪১ মিনিটে দলের প্রথম গোলের পিছনে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন এই জার্মান গোলকিপার। ৪১ মিনিটে বক্স ছেড়ে বাইরে এসে লম্বা শটে সুয়ারেজের জন্য ঠিকানা লেখা বল সাজিয়ে দেন তিনি। আগুয়ান বিপক্ষ গোলরক্ষকের মাথার উপর দিয়ে সেই বল লব করে জালে রাখেন উরুগুয়ে স্ট্রাইকার।

বিরতির সামান্য পরেই বার্সেলোনাকে ইনসিওরেন্স গোল এনে দেন জুনিয়র ফিরপো। কার্লেস পেরেজের দূরপাল্লার শট গেটাফে গোলরক্ষক প্রতিহত করলে ফিরতি বল জালে রাখেন ডমিনিকান রিপাবলিকের এই ফুটবলার। মরশুমে বার্সেলোনার প্রথম অ্যাওয়ে জয় নিশ্চিত হয়ে যায় সেখানেই। শেষদিকে বার্সেলোনা সেন্টার-ব্যাক ক্লিমেন্ট লেংলেট জোড়া হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন। তবে স্বল্পসময়ে দশজনের বার্সার বিরুদ্ধে বিশেষ কোনও সুবিধা করতে পারেনি গেটাফে। অর্থাৎ ২-০ গোলে ম্যাচ জয় এবং সেইসঙ্গে মরশুমের প্রথম ক্লিনশিট রেখে তিন পয়েন্ট নিশ্চিত করে বার্সা। ৭ ম্যাচে ১৩ পয়েন্ট নিয়ে আপাতত চার নম্বরে তারা।

অন্যদিকে লিগা ওয়ানে নেইমারের একমাত্র গোলে বোর্দোকে হারাল পিএসজি। গত ম্যাচে স্টেড রেইমসের বিরুদ্ধে অপ্রত্যাশিত হারের পর এদিন একাদশে ছ’টি পরিবর্তন আনেন পিএসজি কোচ থমাস টাচেল। চোট সারিয়ে এক মাসেরও বেশি সময় বাদে একাদশে অন্তর্ভুক্তি ঘটে কিলিয়ান এমবাপের। ৭০মিনিটে ব্রাজিল ফরোয়ার্ডের উদ্দেশ্যে ম্যাচের একমাত্র গোলের বলটি সাজিয়ে দেন ফরাসি ওন্ডার কিড। এই জয়ের ফলে ৮ ম্যাচে ১৮ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষেই পিএসজি।