কলকাতা: স্বস্তিতে বাংলার ফুটবলপ্রেমীরা। নির্ধারিত দিনেই মুখোমুখি হচ্ছেন বার্সেলোনা লেজেন্ডস বনাম মোহনবাগান লেজেন্ডস’রা। অবশেষে ফেডারেশনের সবুজ সংকেত পেয়ে গেল বহু প্রতীক্ষিত এই ম্যাচ।

পারদ চড়ছিল বহুদিন ধরেই। কিন্তু হঠাৎই এই ম্যাচ আয়োজনে ঢাল হয়ে দাঁড়ায় অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশন। এআইএফএফ’র সম্মতি না মেলায় হাইভোল্টেজ এই ম্যাচ ঘিরে তৈরি হয় অনিশ্চয়তা। অল ইন্ডিয়া ফুটবল ফেডারেশনের তরফ থেকে দাবি করা হয়, এই ম্যাচ আয়োজনের জন্য তাদের থেকে কোনও অনুমতি নেওয়া হয়নি। ঘটনায় নড়েচড়ে বসে মোহনবাগান ক্লাব অফিসিয়ালরা। ক্লাব কর্তৃপক্ষের তরফ থেকে পাল্টা বিবৃতিতে জানানো হয়, অনুমতি চেয়ে অনেক আগেই চিঠি পাঠানো হয়েছে। এমনকি প্রয়োজনে তারা আরও একবার চিঠি পাঠাতে তৈরি।

গত কয়েকদিন ধরেই দু’পক্ষের এই চাপানউতোরে সংশয়ে ভুগছিলেন ক্রীড়াপ্রেমীরা। বার্সেলোনা ক্লাবের তরফ থেকেও জানানো হয় ভারতে তাদের দল পাঠাতে ফিফা, উয়েফা কিংবা স্প্যানিশ ফুটবল ফেডারেশনের কোনও অনুমতির প্রয়োজন নেই। এই মর্মে ভারতের ফুটবল ফেডারেশনকে একটি চিঠিও দেয় তারা। অবশেষে আশার বাণী শোনালেন মোহনবাগান ক্লাব সচিব অঞ্জন মিত্র। তিনি জানান, ‘অবশেষে ছাড়পত্র মিলেছে। আলাদা করে আবেদনের কোন প্রয়োজন নেই। দু-একদিনের মধ্যেই এআইএফএফ’র নো অবজেকশন সার্টিফিকেট চলে আসবে আমাদের হাতে। ম্যাচ আয়োজনে আর কোন বাধা রইল না।’

ম্যাচের আয়োজক সংস্থা ফুটবল নেক্সট’র এক কর্তার কথায়, ‘আই এস এল শুরুর ঠিক আগের দিন এরকম একটি ম্যাচ আয়োজন করা নিয়ে কিছুটা সমস্যা তৈরি হয়েছিল। এআইএফএফ আমাদের অনুরোধ করেছিল ম্যাচটি যাতে ২৪ কিংবা ২৫ সেপ্টেম্বর এগিয়ে আনা যায়। কিন্তু এটিকে কর্তৃপক্ষের সঙ্গে এবিষয়ে আমাদের চুক্তি আগেই হয়ে গিয়েছিল। এটা ঘিরে অহেতুক একটা অনিশ্চয়তা তৈরি হয়েছিল। তবে সব বাধা-বিঘ্ন পেরিয়ে যথাসময়ে ম্যাচটি আয়োজনের ছাড়পত্র মেলায় আমি খুশি।’

এদিকে ম্যাচের উৎসাহ কয়েকগুণ বাড়িয়ে দিয়ে ম্যাচের জন্য নিজেদের টিম লিস্ট আগেই পাঠিয় দিয়েছে বার্সেলোনা ক্লাব কর্তৃপক্ষ। মোহনবাগানও তাদের প্রাথমিক দল ঘোষণা করেছে ইতিমধ্যেই। সেই তালিকায় নাম রয়েছে জোসে ব্যারেটো, আইএম বিজয়ন, বাইচুং ভুটিয়া, দীপক মন্ডল, সুরকুমার সিংদের মত ফুটবলারদের।