স্টাফ রিপোর্টার, বারাসত : মনুয়া অনুপম কাণ্ড কেউ ছাপিয়ে গেল উত্তর ২৪ পরগনার দত্ত পুকুরের দেবানন্দ মন্ডল হত্যার ঘটনা । সোমবার দেবানন্দ মণ্ডলের রক্তাক্ত দেহ উদ্ধার হয় দত্ত পুকুর থানা এলাকা থেকে। এরপর এএসপির নেতৃত্বে শুরু হয় এই খুনের ঘটনার তদন্ত। মাত্র ১২ ঘন্টাতেই তদন্তের কিনারা করে ফেলে পুলিশ।

জানা গিয়েছে, দেবানন্দ মণ্ডলের স্ত্রীর সঙ্গে গৌতম দে’র বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ক ছিলো। আর যার কারণে দেবানন্দ মণ্ডলের স্ত্রী, কলেজ পড়ুয়া একমাত্র ছেলে এবং স্ত্রীর প্রেমিক গৌতম দে তিনজন মিলে দেবানন্দকে নেশা করিয়ে মদের বোতল ভেঙে তা দিয়ে গলায় কোপ মেরে তাঁকে খুন করে।

এই ঘটনায় দেবানন্দ মণ্ডলের স্ত্রী, পুত্র ও স্ত্রীর প্রেমিককে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। বারাসাত জেলা পুলিশ সুপার অভিজিত বন্দোপাধ্যায় এদিন সাংবাদিক বৈঠক করে বলেন, মায়ের বিবাহ বহির্ভূত সম্পর্ককে মেনে নিয়ে মা এবং মায়ের প্রেমিকের সঙ্গে ষড়যন্ত্র করে নিজের বাবাকেই পৃথিবী থেকে সরিয়ে দেয় ছেলে। এই ঘটনার কথা পুলিশের কাছে অপরাধীরা স্বীকার করে নিয়েছে বলে জানান জেলা পুলিশ সুপার অভিজিত বন্দোপাধ্যায়।

পপ্রশ্ন অনেক: একাদশ পর্ব

লকডাউনে গৃহবন্দি শিশুরা। অভিভাবকদের জন্য টিপস দিচ্ছেন মনোরোগ বিশেষজ্ঞ।