স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: হাওড়া জেলা আদালতের আইনজীবীদের ওপর বেপরোয়া লাঠি চালানো তীব্র প্রতিবাদ করল রাজ্য বার কাউন্সিল৷ গত ২৪ শে এপ্রিল কর্পোরেশনের নতুন গেটের সামনে এক আইনজীবীর গাড়ি রাখাকে কেন্দ্র করে উত্তেজনা ছড়িয়ে পড়ে৷

শুক্রবার রাজ্য বার কাউন্সিলের চেয়ারম্যান বিধায়ক অশোক দেব, রাজ্য বার কাউন্সিলের সদস্য বৈশ্বানর চট্টোপাধ্যায় সহ একটি প্রতিনিধি দল হাওড়া আদালতে যান এবং সরেজমিনে দেখে আসেন ঘটনাস্থল৷ আহত আইনজীবীদের পাশে থাকার প্রতিশ্রুতিও দেন তাঁরা৷

এই ব্যাপারে হাওড়া জেলা ও দায়রা বিচারকের সঙ্গে কথা বলেন তাঁরা৷ আদালত চত্বরে ঢুকে আইনজীবীদের উপর লাঠিচার্জ করার ঘটনার ধিক্কার জানিয়েছে প্রতিটি আইনজীবী সংগঠন।

আরও পড়ুন : কংগ্রেসকে ভোট দেওয়ায় স্ত্রীয়ের মুখে অ্যাসিড, কমিশনে যাচ্ছেন প্রদীপ ভট্টাচার্য

তৃণমূলের আইনজীবী সংগঠনের রাজ্য কমিটির সদস্য দেবব্রত চট্টোপাধ্যায় জানান এই ঘটনা খুবই দু:খজনক৷ এর প্রতিবাদে রাজ্য বার কাউন্সিল আগামী সোমবার পর্যন্ত আইনজীবীদের কর্মবিরতির ডাক দিয়েছেন। তিনি জানান এই ব্যাপারে আইনানুগ সব রকম ব্যবস্থা নেওয়া হবে এবং প্রধান বিচারপতি ও রাজ্য সরকারের সাথেও আলোচনা করা হবে বলে জানিয়েছেন।

উল্লেখ্য, হাওড়া কোর্টের আইনজীবী ও পুরসভার কর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে৷ তারই প্রশাসনিক ও বিচারবিভাগীয় রিপোর্ট তলব করে হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতির ডিভিশন বেঞ্চ৷ আগামী সোমবারের মধ্যে রিপোর্ট তলব করা হয়েছে৷ সেই রিপোর্টের ভিত্তিতেই পদক্ষেপ করা হবে বলে জানা গিয়েছে৷

আরও পড়ুন : পশ্চিমবঙ্গে এখন সিন্ডিকেট, ক্যাডার ও ভাইপো রাজ চলছে: বিপ্লব দেব

আইনজীবী এবং পুরকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষে বুধবার রণক্ষেত্র হয়ে ওঠে হাওড়া কোর্ট চত্বর৷ পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে পুলিশকে লাঠি চার্জ, কাঁদানে গ্যাসের সেল ফাটাতে হয়৷ পুলিশের মারে জখম বেশ কয়েকজন আইনজীবী৷ প্রতিবাদে আজ থেকে অনির্দিষ্ট কালের জন্য কর্মবিরতি শুরু করেন হাওড়া আদালতের আইনজীবীরা৷

বুধবার পুলিশের আচরণে অসম্মানিত আইনজীবীরা৷ তাই শুধু কর্মবিরতি করেই শেষ নয়, পুলিশের বিরুদ্ধে এদিন হাইকোর্টে জনস্বার্থ মামলার আবেদনও করা হবে হাওড়া বার অ্যাসোসিয়েশনের তরফে৷ ঘটনার সূত্রপাত বুধবার সকাল সাড়ে দশটা নাগাদ। কর্পোরেশনের ভিতর আটকে পড়েন কয়েক হাজার কর্মী। পুর দফতরে কাজে আসা মানুষরাও বিপদে পড়েন৷ কর্পোরেশনের দুটি গেটই আটকে দেন আইনজীবীরা।

আরও পড়ুন : সরকারি সম্পত্তিতে দিদির ছবি, কমিশনে অধীর বাহিনী

বুধবার সকাল থেকে সন্ধ্যা, প্রায় ছ’ঘন্টা ধরে চলে এই পরিস্থিতি৷। রাজ্যের মন্ত্রী অরূপ রায়ও আসেন জটিল অবস্থা সামলাতে৷ কিন্তু অনড় আইনজীবীরা ঘিরে থাকেন হাওড়া কর্পোরেশন দফতর। দফায় দফায় চলে ইটবৃষ্টি।

এক সময় আইনজীবী এবং পুরকর্মীদের মধ্যে সংঘর্ষে ব্যাপক আকার ধারণ করে৷ দফায় দফায় চলে ইঁট বৃষ্টি৷ পরে হাওড়া কমিশনারেটের বিশাল পুলিশ আসে৷ নামানো হয় ব়্যাফ৷ পরিস্থিতি বাগে আনতে লাঠি চার্জ করে তারা৷ ফাটানো হয় কাঁদানে গ্যাসের শেল৷