ফাইল ছবি

তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়া: দলবদলের ঘটনা অব্যাহত বাঁকুড়ায়। বাঁকুড়া জেলা তৃণমূল সূত্রে দাবি, ওন্দার নিকুঞ্জপুর গ্রাম পঞ্চায়েতের ১৮টি পরিবার বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছেন৷ এলাকার ১৪ জন এবিভিপি সদস্যও যোগ দিয়েছেন টিএমসিপিতে৷ যদিও দলবদলের এই খবর উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলে দাবি স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্বের৷ রাজনৈতিক ফায়দা নিতেই তৃণমূল এলাকায় অপপ্রচার চালাচ্ছে বলে অভিযোগ স্থানীয় বিজেপি নেতৃত্বের৷

তৃণমূলের বিষ্ণুপুর সাংগঠনিক জেলা নেতৃত্ব সূত্রে খবর, ওন্দার নিকুঞ্জপুর পঞ্চায়েতের ১৮টি পরিবার বিজেপি ছেড়ে তৃণমূলে যোগ দিয়েছে। অন্যদিকে, ওন্দা কলেজেরও ১৪ জন এবিভিপি ছেড়ে টিএমসিপিতে যোগ দিয়েছেন। সদ্য দলে আসা কর্মীদের হাতে দলের পতাকা তুলে দেন দলের বিষ্ণুপুর সাংগঠনিক জেলা সভাপতি ও রাজ্যের মন্ত্রী শ্যামল সাঁতরা ও তৃণমূলের বিধায়ক অরুপ খাঁ। ওন্দা কলেজ থেকে যে ১৪ জন ফের তৃণমূলে ফিরলেন মূলত তাঁদের নেতৃত্বেই ওই এলাকায় সংগঠন দাঁড়িয়েছিল এবিভিপির৷ এবার ওন্দা কলেজ-সহ পার্শ্ববর্তী এাকায় এবিভিপির অস্তিত্ত্ব সংকটে পড়ল বলে দাবি স্থানীয় তৃণমূল নেতৃত্বের৷

এবিভিপি ছেড়ে টিএমসিপিতে যোগ দিয়ে এক যুবক জানালেন, তৃণমূলেই ছিলেন, দলে ভুল বোঝাবুঝির জেরে বিজেপিতে গিয়েছিলেন৷ মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আদর্শে অনুপ্রাণিত হয়ে ফের তৃণমূলে ফিরে এসেছেন বলে জানান ওই যুবক৷ ওন্দার তৃণমূল বিধায়ক অরুপ খাঁ জানান, লোকসভা ভোটের ফল প্রকাশের পর অনেকেই বিজেপি শিবিরে নাম লিখিয়েছিলেন। তাঁরাই এখন নিজেদের ভুল বুঝতে পেরে দলে ফিরে আসছেন। লোকসভা ভোটের ফলাফল যাই হোকনা কেন, আসন্ন কলেজ নির্বাচনগুলিতে টিএমসিপি বিপুলভাবে জিতবে বলে আশাবাদী অরুপ খাঁ৷

তৃণমূলের বিষ্ণুপুর সাংগঠনিক জেলা সভাপতি ও রাজ্যের মন্ত্রী শ্যামল সাঁতরা বলেন, ‘লোকসভা ভোটের ফল প্রকাশের পর বিজেপির সন্ত্রাসের কারণে অনেকেই দল ছেড়েছিলেন। তাঁরাই এবার দলে ফিরে আসছেন৷’

অন্যদিকে, বিজেপির বাঁকুড়া জেলা যুব মোর্চার সম্পাদক সৌগত পাত্র দলবদল প্রসঙ্গে তৃণমূলকে কটাক্ষ করে জানান, তৃণমূল নিজেদের লোকেদের বিজেপি সাজিয়ে বারবার দলে যোগদান দেখাচ্ছে। তাঁর আরও অভিযোগ, জেলার বিভিন্ন জায়গায় বিজেপি কর্মী-সমর্থকদের মিথ্যাভাবে পুলিশি মামলায় ফাঁসিয়ে দেওয়ার ভয় দেখানো হচ্ছে৷ ভয় দেখিয়ে বিজেপি কর্মীদের তৃণমূলে যোগ দিতে বাধ্য করা হচ্ছে বলেও অভিযোগ বিজেপির ওই যুবনেতার৷

পপ্রশ্ন অনেক: নবম পর্ব

Tree-bute: আমফানের তাণ্ডবের পর কলকাতা শহরে শতাধিক গাছ বাঁচাল যারা