তিমিরকান্তি পতি, বাঁকুড়া: মরশুমের উষ্ণতম দিনের সাক্ষী থাকলো বাঁকুড়া। গরমে জ্বলছে প্রায় গোটা দক্ষিণবঙ্গ। তবে বাঁকুড়ার গরম অনেটাই বেশি।

রবিবার বেলা বাড়তেই তীব্র তাপ প্রবাহ শুরু হয় বাঁকুড়ার উপর দিয়ে। এদিন দুপুর আড়াইটায় তাপমাত্রা ছিল ৪৩.৮ ডিগ্রি। শনিবার যেখানে তাপমাত্রা ছিল ৪৩.৩ ডিগ্রি।

এত দাবদাহের মাঝে সকাল ১০ টার পর খুব জরুরি প্রয়োজন ছাড়া মানুষ বাড়ির বাইরে বেরোচ্ছেন না। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে রাস্তা ঘাট শুনশান। অতিরিক্ত তাপ প্রবাহের সঙ্গে সঙ্গে লু বইতে শুরু করেছে জেলা জুড়ে। স্বাভাবিকভাবেই মানুষের অসুস্থ হয়ে যাওয়ার প্রবণতা বাড়ছে। তাই আতঙ্কেই বাড়ি থেকে বেরচ্ছেন না কেউ।

অধিকাংশ স্কুলে সকালে ক্লাস শুরু হয়েছে। রবিবার জেলায় মরশুমের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা অনুভূত হচ্ছে। ফলে তীব্র গরমের সঙ্গে পাল্লা দিয়ে গরমে অস্বস্তিকর পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে। এই অবস্থায় মানুষ কিভাবে দিনের বেশীর ভাগ সময়টা কাটাবেন ভেবে পাচ্ছেননা।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।