প্রতীতি ঘোষ, উত্তর ২৪ পরগনা: বেতন বৃদ্ধি, শূন্যপদে কর্মী নিয়োগ সহ মোট ১২ দফা দাবিতে ডাকা দুদিনের ব্যাংক ধর্মঘটে প্রথম দিন থেকেই ব্যাপক প্রভাব পড়েছে উত্তর ২৪ পরগণাতেও। ইউনাইটেড ফোরাম অফ ব্যাংক ইউনিয়নের ডাকে গোটা দেশে শুরু হয়েছে শুক্র ও শনিবারের দুইদিনের ব্যাংক ধর্মঘট। ধর্মঘটে সামিল হয়েছেন, উত্তর ২৪ পরগণা জেলার বিভিন্ন এলাকার ব্যাংক কর্মচারী এবং অধিকারিকরাও।

এদিন সকাল থেকেই ব্যাংক গুলির সামনে বেতন বৃদ্ধি সহ অন্যান্য অধিকারের দাবিতে অবস্থান আন্দোলন চালাচ্ছেন তাঁরা। ব্যাংকের পাশাপাশি এটিএম কাউন্টার গুলিও বন্ধ থাকায় লেনদেনের সংক্রান্ত ব্যাপারে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে সাধারণ গ্রাহকদের।

এই বিষয়ে ব্যাংক কর্মীদের বক্তব্য, বিভিন্ন ব্যাংকে বন্ধ রাখা হয়েছে কর্মী নিয়োগ। যার ফলে দ্রুত পরিষেবা পেতে সমস্যায় পড়তে হচ্ছে সাধারন গ্রাহকদের। কেন্দ্রীয় সরকার প্রতিনিয়ত গ্রাহকদের গচ্ছিত টাকার উপর ব্যাংকের সুদ কমিয়ে দিচ্ছে। এই পরিস্থিতিতে একদিকে গ্রাহকরা এবং অন্যদিকে ব্যাংক কর্মীরা কর্মক্ষেত্রে সমস্যায় পড়ছেন। কেন্দ্রের উচিত, অবিলম্বে এই বিষয়ে হস্তক্ষেপ করা। কেন্দ্রীয় সরকার ব্যাংকের পরিষেবা উন্নত করার বিষয়ে উদাসীন বলেও অভিযোগ জানান তাঁরা।

এদিন সকাল থেকেই এই জেলার প্রায় সব ব্যাংক এবং এটিএম সম্পূর্ণ বন্ধ রয়েছে। যার ফলে সমস্যায় পড়েছেন সাধারন মানুষ। আন্দোলনরত ব্যাংক কর্মীরা জানিয়েছেন, যদি তাঁদের দাবি পূরণ না হয়, তাহলে মার্চ মাসে আবার ব্যাংক ধর্মঘট ডাকবেন তাঁরা। ব্যাংক কর্মীদের সংগঠনের ডাকা ধর্মঘটের জেরে শুধুমাত্র ব্যাংক পরিষেবা নয়, ব্যাহত হয়েছে এটিএম পরিষেবাও। যারফলে সমস্যায় পড়েছেন হাজার হাজার গ্রাহক। শুধু শুক্রবার নয়, শনিবারও একই দুর্ভোগ পোহাতে হতে পারে গ্রাহকদের।