নয়াদিল্লি: ব্যাংক গ্রাহকদের জন্য আসতে চলেছে এক নতুন চমক। আজকের ডিজিটাল যুগে এক নতুন দিক খুলতে চলেছে গুগলের হাত ধরে। বর্তমানে ভারত সহ বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তের মানুষ ক্রমেই নির্ভর হয়ে পড়েছে ডিজিটাল জগতের দুনিয়াতে। ফেসবুকের পরে এবার গুগল পা রাখতে চলেছে অর্থনীতির দুনিয়াতে। এক সূত্র মারফত জানা গিয়েছে, এই সার্চ ইঞ্জিন বেশ কিছু ব্যাংকের সঙ্গে জোট বাধতে চলেছে।

গুগল পে অ্যাপ এই মুহূর্তে অধিকাংশ মানুষ ব্যবহার করেন। এর এই ডিজিটাল যুগে এটি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। আর যাতে ব্যাঙ্কিং সংক্রান্ত সকল পরিষেবা আরও ভালভাবে এই অ্যাপের সাহায্যে মানুষ করতে পারেন তাই এই নয়া পদক্ষেপ বলে জানা গিয়েছে। আগামী ২০২০ সালের মধ্যে গুগলের এই ব্যাংকিং প্রকল্প লঞ্চ হবে বলেও জানা গিয়েছে।

এর মাধ্যমে গুগল পে অ্যাকাউন্টের তথ্য চেক করা যাবে। কোড নেম ক্যাচের সাহায্যে এই অ্যাপে তথ্য থাকবে। আপনার কাছের কোনও ব্যাংকের সঙ্গে সংযোগ তৈরি করে এই প্রকল্প আনা হচ্ছে বলে জানা গিয়েছে।

গুগল মারফত জানা গিয়েছে এই নয়া পদক্ষেপের ফলে ব্যবহারকারীদের অর্থনৈতিক তথ্য বাইরে প্রকাশিত হবে না। তথ্য চুরি যাওয়ার কোন ভয় নেই ব্যবহারকারীদের। ডিজিটাল যুগে বেশী সংখ্যক মানুষ যাতে ইন্টারনেটের মাধ্যমে কাজ করতে পারেন তাহলে খুব দ্রুত ডিজিটালে অভস্ত হয়ে উঠবে মানুষজন। আর তাই এই ধরণের পদক্ষেপ বলেও মনে করা হচ্ছে।

এর আগে ফেসবুক তার অন্যান্য অ্যাপলিকেশনের জন্য নিয়ে এসেছিল ডিজিটাল পেমেন্ট সিস্টেম। যদিও তার ব্যার্থতা নিয়ে ফেসবুক সিইও মার্ক জুকেরবার্গকে গত মাসে এই আমেরিকার তরফ থেকে জানানো হয়েছিল। দীর্ঘ ছয় ঘণ্টা ধরে বৈঠক করার পরে ফাইনান্সিয়াল সার্ভিসের তরফ থেকে ফেসবুকের ক্রিপ্টোকারেন্সি প্ল্যান নিয়ে অসন্তোষ প্রকাশ করা হয়েছিল। যে কারণে ফেসবুক তাঁদের ডিজিটাল পেমেন্ট সিস্টেম লিব্রা আগামী বছরে বাজারে আনবে। এছাড়াও নিউ ইয়র্কের ফাইনান্সিয়াল সার্ভিসের তরফ থেকে অ্যাপেল কার্ডের বিরুদ্ধেও অভিযোগ আনা হয়েছে। এখন দেখার গুগলের এই নয়া পদক্ষেপ ক্রেতাদের কিভাবে মন জয় করতে পারে। কেননা এই মুহূর্তে বিশ্বে সার্চ ইঞ্জিন বলতে সকলেই একবাক্যে গুগলকে ভরসা করেন। তাই গুগলের এই নতুন পদক্ষেপ কতটা সফল হয়েছে তা দেখার জন্য অপক্ষা করে থাকতে হবে ভবিষ্যতের দিকে।