নয়াদিল্লি:  ব্যাংক ডুবলে অ্যাকাউন্টে যতই থাকুক না কেন মাত্র ১ লক্ষ টাকাই পেতেন গ্রাহক। বাকি অর্থ পাওয়ার জন্যে আবেদন করতে হয়। সবদিক খতিয়ে দেখে তা দেওয়া হত গ্রাহককে। কিন্তু তা পেতে পেতে সর্বস্ব খুইয়ে ফেলতে হত সংশ্লিষ্ট গ্রাহককে। ফলে দীর্ঘদিন ধরে এই আইন পরিবর্তনে দাবি উঠছিল। সম্প্রতি নির্মলা সীতারমণ তাঁর বাজেটে দীর্ঘদিনের আইনে বদল এনেছেন। এখন থেকে ব্যাংক ডুবলে পাঁচ লক্ষ টাকা পাবেন গ্রাহক। বাজেটে ঘোষণার কয়েকদিনের মধ্যে এই প্রস্তাব কার্যকর করা হল। মঙ্গলবার থেকে ব্যাংক গ্যারান্টির অর্থ বেড়ে পাঁচ লাখ হল। ইতিমধ্যে এই সংক্রান্ত বিবৃতি জারি করেছে রিজার্ভ ব্যাংক অফ ইন্ডিয়া।

দেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের তরফে জারি করা বিবৃতিতে জানানো হয়েছে, ১ লক্ষ টাকা থেকে বেড়ে ৫ লক্ষ টাকা কার্যকর হয়েছে। কেন্দ্রীয় সরকারের ছাড়পত্র পাওয়ার পর মঙ্গলবার থেকেই ব্যাংক গ্যারান্টি বেড়েছে। কোনওভাবে ব্যাংক ডুবলে বিমার অর্থ দেবে রিজার্ভ ব্যাংকের সম্পূর্ণ মালিকানাধীন সহায়ক সংস্থা ডিপোডিট ইন্সিওরেন্স অ্যান্ড ক্রেডিট গ্যারান্টি কর্পোরেশন।

প্রসঙ্গত, ব্যাংক ডুবলে প্রাথমিকভাবে ১ লক্ষ টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার এই নিয়ম ছিল ২৬ বছর পুরোনো। ১৯৯৩ সালে ব্য়াংকিং আমানতে বিমা বাবদ ক্ষতিপূরণের সর্বোচ্চ সীমা ৩০ হাজার থেকে বাড়িয়ে ১ লাখ করা হয়েছিল। পরবর্তীকালে তা ৫ লাখ করার দাবি উঠলেও কখনই গুরুত্ব পায়নি। কিন্তু নির্মলা সিতারমণ সেই সাহস দেখিয়েছেন। ১ লক্ষ টাকা থেকে বিমার পরিমাণ বাড়িয়ে ৫ লক্ষ টাকা করেছেন। আর তা বাজেটে প্রস্তাব দেওয়ার কিছুদিনের মধ্যেও তা কার্যকর করা হল।