স্টাফ রিপোর্টার, কলকাতা: বহু বছর ধরে কলকাতা বইমেলায় যোগ দিলেও আগে কখনও এমনটা ঘটেনি। এমনটাই জানালেন বাংলাদেশি বই বিক্রেতা। কলকাতা বইমেলায় বাংলাদেশ প্যাভিলিয়নে ১৭ নম্বর স্টল দিব্য প্রকাশনীর। রবিবার দুপুরে ওই স্টল থেকে হারিয়ে যায় একটি ব্যাগ। সেই ব্যাগেই ছিল লক্ষাধিক টাকা এবং পাসপোর্ট। তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

দিব্য প্রকাশনীর বই বিক্রেতা খাইরুল হাসান সাজু kolkata24x7-কে বলেন, “টাকার ব্যাগটা সব সময় কাঁধে রাখতাম। রবিবার দুপুরে প্রচণ্ড ভিড় হয় স্টলে। এক খদ্দেরের পছন্দের বই টেবিলের তলা তলা থেকে বের করার সময় আমার ব্যাগটা পাশের চেয়ারে রাখি। কিছুক্ষণের মধ্যেই দেখি ব্যাগটা নেই।”

ওই ব্যাগেই ছিল খাইরুলের পাসপোর্ট। সর্বস্ব খোয়ানোর পর দিশেহারা বাংলাদেশের ওই বই বিক্রেতা। তাঁর কথায়, “ব্যাগে আমার পাসপোর্ট ছিল। এক লক্ষের কিছু বেশি ইন্ডিয়ান রুপি এবং প্রায় চার হাজার বাংলাদেশি টাকা ছিল। ১১ তারিখ কলকাতার একটি বেসরকারি হাসপাতালে আমার ডাক্তার দেখানোর কথা। টাকার আর দেখানো হবে না। দেশে কী করে ফিরব তা নিয়ে চিন্তায় আছি।”

পাসপোর্ট-টাকা হারানো খাইরুল প্রথমে গিল্ড অফিসে অভিযোগ করেন। তারপর বইমেলার পুলিশ কন্ট্রোল রুমে জানান। এরপর বিধাননগর উত্তর থানায় অভিযোগ দায়ের করেন। বইমেলার সম্পাদক সুধাংশুশেখর দে বলেন, “আমরা কন্ট্রোল রুমের অভিযোগের ভিত্তিতে সোমবার বইমেলার মাঠে ঘোষণা চালাব যে– ব্যাগটি পেয়ে থাকলে গিল্ড অফিসে ফেরত দিন। বাংলাদেশি ওই বিক্রেতার প্রতি আমাদের সমবেদনা।”

সল্টলেকের সেন্ট্রাল পার্কে চলছে ৪৪তম আন্তর্জাতিক কলকাতা বইমেলা। প্রতিবারই বইমেলায় বাংলাদেশের প্রকাশকদের জন্য আলাদা প্যাভিলিয়ন বানানো হয়। এবারের প্যাভিলিয়নে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মরণে তৈরি করা হয়েছে। মেলায় যোগ দিয়েছেন বাংলাদেশের বহু জনপ্রিয় প্রকাশনা। রবিবার দুপুরে ১৭ নম্বর স্টলের বিদ্য প্রকাশনী থেকে হারিয়ে যায় একটি ব্যাগ। ওই ব্যাগের ভেতরে লক্ষাধিক টাকা ছিল।