লখনউ: সীমান্তে কড়া নজরদারি সত্ত্বেও কিছুতেই আটকানো যাচ্ছে না অনুপ্রবেশ। দিন হোক বা রাত বিএসএফের চোখকে ধুলো দিয়ে ভারতে ঢুকে পড়ছে বহু বাংলাদেশী। বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার ভারত সফর শেষ হতে না হতেই ফের লখনউ বিমানবন্দরে ধরা পড়ল এক অবৈধ বাংলাদেশী অনুপ্রবেশকারী।

জানা গিয়েছে রেজবা নামের ওই বাংলাদেশী নিজেকে ভারতীয় এবং পশ্চিমবঙ্গের উত্তর চব্বিশ পরগনার বাসিন্দা পরিচয় দিয়ে ঢুকে পড়ে ভারতে। শুধু তাই নয় নিজের পরিচয় গোপন করে লখনউ থেকে কলকাতায় আসার ফ্লাইট ধরার চেষ্টায় ছিল ধৃত ওই বাংলাদেশীর। বর্তমানে ধৃত ওই ব্যক্তি পুলিশের হেপাজতে রয়েছে। কি করে সে ভারতীয় জাল পাসপোর্ট বানিয়ে এই দেশে ঢুকে পড়ল সেই বিষয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করার জন্য আটক করেছে উত্তরপ্রদেশ পুলিশ।

ঘটনাটি ঘটেছে, রবিবার রাতে উত্তরপ্রদেশের লখনউ’এর চৌধুরী চরন সিং আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে। বিমানবন্দর কর্তৃপক্ষ জানিয়েছে, ধৃত ওই অপরাধী আদতে বাংলাদেশের নাগরিক। জাল ভারতীয় পাসপোর্টে তার নাম রয়েছে, সত্যজিৎ দাস এবং ঠিকানা দেওয়া রয়েছে পশ্চিমবঙ্গ রাজ্যের উত্তর চব্বিশ পরগনা জেলার।

জানা গিয়েছে, বাংলাদেশ থেকে আগত ওই ব্যক্তি এদিন উত্তরপ্রদেশের লখনউ চৌধুরী চরন সিং আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে আসে কলকাতা যাওয়ার বিমান ধরার উদ্দ্যেশ্যে। কিন্তু তার মিশন সাফল্য লাভ করার আগেই বিমানবন্দরের নিরাপত্তারক্ষীদের হাতে পাকড়াও হয় সে। তদন্তের স্বার্থে পরে তাকে উত্তরপ্রদেশ পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে বলে জানা গিয়েছে।

সূত্রের খবর, চৌধুরী চরন সিং আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে যাত্রীদের নাকা চেকিং করার সময় ধৃত সত্যাজিৎ আদতে রেজবাকে দেখে প্রথমে কিছুটা সন্দেহ হয় সেদিন বিমানবন্দরে কর্তব্যরত কর্মীদের। পরে তার জিনিসপত্র এবং পাসপোর্ট ভালো করে চেক করার সময় নিরাপত্তারক্ষীদের সামনে উঠে আসে জাল পাসপোর্টের বিষয়টি । পরে ওই অপরাধীকে বিমানবন্দরের তরফে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে।