ফাইল ছবি

ঢাকা: তাঁর বর্তমান বয়স ৩৫ বছর। যখন তিনি প্রথম বিয়ে করেছিলেন তখন তাঁর বয়স ছিল ২১ বছর। কিন্তু তাঁর পর থেকে যেন বিয়ে করাকেই পেশা হিসেবে বেছে নিয়েছিল এই তরুণ। আসলে বারবার বিয়ে করে ধর্ষণ ও ব্ল্যাকমেলিং করত ওই যুবক, অভিযোগ তেমনই।

ওই তরুণের নাম জাকির হোসেন ব্যাপারী। ২১ বছরে প্রথম বিয়ের পর থেকে পরবর্তী ১৪ বছরে সে বিয়ে করেছে মোট ২৮৬ টি। যা জেনে চোখ কপালে উঠেছে সমস্ত মানুষের। তার বর্তমান ঠিকানা আহসান মোল্লা রোড, আইচপাড়া, টঙ্গী।

পড়ুন আরও- এক বিশেষ দিনে নাকি একসঙ্গে সময় কাটাবেন ক্যাটরিনা-ভিকি

জানা যাচ্ছে, অভিযুক্ত কোনো চাকরি বা ব্যবসা করতেন না। তবুও দামি দামি পোশাক পড়ে ব্রান্ডের গাড়িতে চড়ে ভোলাতেন সুন্দরী তরুণীদের। বিভিন্ন সময় নিজেকে অবিবাহিত এবং সরকারি-বেসরকারি কর্মকর্তা পরিচয় দিয়ে মেয়েদের সঙ্গে সম্পর্ক গড়ে তুলতেন। বুধবার এক তরুণী প্রতারণার অভিযোগে তেজগাঁও থানায় মামলা করেন। ওই মামলায় তেজগাঁও থানা পুলিশ তাকে গ্রেফতার করে। পুলিশ তাকে দুইদিন নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করেছে। জিজ্ঞাসাবাদে তিনি অকপটে স্বীকার করেন তার বিয়ে এবং প্রতারণার কাহিনী।

তাঁর বারবার বিয়ে করার কাহিনী হিসেবে লুকিয়ে রয়েছে আলাদা কাহিনী। বিয়েতে তাঁর আসল উদ্দেশ্য ছিল লোক ঠকানো বা প্রতারণা। বিয়ে করে সে টাকা নিত এবং পাশাপাশি মেয়েদের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ অবস্থার ভিডিও তুলে পরে ব্ল্যাকমেলিং করে টাকা কামাত সে। বিয়ের পর সে নতুন স্ত্রী-র বাড়িতেই থাকত। তারপর টাকা পয়াসা নিয়ে পালাত সে। এসব বিয়ের খবর তিনি কোনো স্ত্রীকে জানতে দিতেন না।

অবশেষে ঢাকার মণিপুরী পাড়া থেকে তাঁকে গ্রেফতার করে পুলিশ। রীতিমতো বলিউডি কায়দায় জাকির হোসেনের এই দৃশ্য দেখে আঁতকে উঠেছে সাধারণ মানুষ।