ইন্দোর: টি-২০ সিরিজের শুরুতেই ঐতিহাসিক জয় বাংলাদেশের৷ ঘুরে দাঁড়িয়ে তিন ম্যাচের টি-২০ সিরিজের দখল নেয় টিম ইন্ডিয়া৷ এবার লড়াই টেস্টের আঙিনায়৷ ঘরের মাঠে টিম ইন্ডিয়ার সাম্প্রতিক রেকর্ড তাদের একাধিপত্য প্রমাণ করে৷ ২০১৩ থেকে এখনও পর্যন্ত ঘরের মাঠে ৩২টি টেস্টের মধ্যে ২৬টি ম্যাচে জয় তুলে নিয়েছে ভারত৷ ড্র হয়েছে ৫টি ম্যাচ৷ ১টি মাত্র ম্যাচে পরাজয়ের মুখ দেখেছে টিম ইন্ডিয়া৷ তাছাড়া ঘরের মাঠে টানা ১১টি টেস্ট সিরিজ জিতেছে বিরাট কোহলিরা৷

এই অবস্থায় আইসিসি ওয়ার্ল্ড টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের শীর্ষে থাকা ভারত ঘরের মাঠে নিজেদের রেকর্ড আরও কিছুটা উজ্জ্বল করতে তৎপর৷ ক্রিকেটমহলের একতরফা বাজি রয়েছে ভারতের দিকেই৷ টিম ইন্ডিয়ার মতো বিশ্বের সেরা টেস্ট দলের বিরুদ্ধে হারানোর কিছু নেই বলেই বাংলাদেশের উপর চাপ তুলনায় কম থাকবে৷ তাই তারা চমক দেওয়ার একটা চেষ্ট করবে নিশ্চিত৷

আরও পড়ুন: ইডেনের শিশিরে পুরনো গোলাপি বলের আচরণ নিয়ে সংশয়ে কোহলি

ইন্দোরের প্রথম টেস্টে টস ভাগ্য সঙ্গ দেয় টাইগারদের৷ বাংলাদেশ অধিনায়ক মোমিনূল হক টস জিতে প্রথমে ব্যাট করার সিদ্ধান্ত নেন৷ পিচে পর্যাপ্ত ঘাস থাকায় ভারত অধিনায়ক বিরাট কোহলি শুরুতে বল করতে চেয়েছিলেন৷ সেদিক থেকে টস হারলেও টিম ইন্ডিয়ার পরিকল্পনায় বিশেষ ধাক্কা লাগবে বলে মনে হয় না৷

শাহবাজ নদিম স্কোয়াডে না থাকায় বাংলাদেশের বিরুদ্ধে ইন্দোর টেস্টে ভারতের প্রথম একাদশে রদবদল অবসম্ভাবি ছিল৷ নদিমের জায়গায় প্রথম একাদশে ফেরেন ইশান্ত শর্মা৷ বাংলাদেশ ৪ জন বিশেষজ্ঞ বোলার নিয়ে প্রথম টেস্ট খেলতে নামে৷

আরও পড়ুন: সৌরভকে সরে যেতে হলে সেটা হবে লজ্জার: গম্ভীর

ভারতীয় দল: রোহিত শর্মা, ময়াঙ্ক আগরওয়াল, চেতেশ্বর পূজারা, বিরাট কোহলি (ক্যাপ্টেন), অজিঙ্কা রাহানে, রবীন্দ্র জাদেজা, ঋদ্ধিমান সাহা (উইকেটকিপার), রবিচন্দ্রন অশ্বিন, ইশান্ত শর্মা, মহম্মদ শামি ও উমেশ যাদব৷

বাংলাদেশ দল: শাদমান ইসলাম, ইমরুল কায়েস, মহম্মদ মিঠুন, মোমিনূল হক (ক্যাপ্টেন), মুশফিকুর রহিম, মাহমুদুল্লাহ, লিটন দাস (উইকেটকিপার), মেহেদি হাসান, তাইজুল ইসলাম, আবু জায়েদ ও এবাদত হোসেন৷