ঢাকাঃ  হঠাত বাংলাদেশের উপর আছড়ে পড়ল ঘুর্ণিঝড়। ময়মনসিংহের ধোবাউড়ায় আকস্মিক ভাবে ঘূর্ণিঝড় আছড়ে পড়ে। প্রবল বেগে ঝোড়ো হাওয়ার কারণে লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে সীমান্ত এলাকার একটি বাজার। প্রবল ঘুর্ণিঝড়ে আশপাশের বেশ কয়েকটি বাড়ি-ঘরও ভেঙে গিয়েছে বলে জানা যাচ্ছে।

যার কারণে ব্যাপক ক্ষয়-ক্ষতি হয়েছে। এমনটাই জানাচ্ছে স্থানীয় সংবাদমাধ্যম। প্রকাশিত খবর মোতাবেক, শনিবার বিকালে ধোবাউড়া উপজেলার সীমান্ত এলাকা পুটিমারী বাজার ও ভেদীকুড়া গ্রামের উপর দিয়ে আকস্মিক এই ঘূর্ণিঝড় বয়ে যায়। যার কারণে ওই বাজারের ২৫টি দোকান ও ভেদীকুড়া গ্রামের অন্তত ১২টি ঘর সম্পূর্ণ ভেঙে পড়ে। ঘুর্ণিঝড়ের কারণে একটি গরুও মারা গিয়েছে। সংবাদমাধ্যমে এমনটাই জানিয়েছে স্থানীয় মানুষজন।

স্থানীয়রা জানায়, বিকাল ৫টার দিকে হঠাৎ বিকট শব্দ শুরু হয়। মাত্র ২ মিনিটের ব্যবধানে লণ্ডভণ্ড করে দেয় পুরো পুটিমারী বাজারটি। তবে এখনও পর্যন্ত কোনও হতাহতের খবর পাওয়া যায়নি। ঘটনার পর স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ফজলুল হক বলেন, আমি ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় গিয়েছিলাম। ক্ষয়-ক্ষতির পরিমাণ নির্ধারণ করা হচ্ছে। অন্যদিকে, উপজেলা নির্বাহী অফিসার রাফিকুজ্জামান বলেন, আমরা ক্ষয়-ক্ষতির পরিমাণ নির্ধারণ করছি, যতটুকু সম্ভব সরকারিভাবে সহায়তা করা হবে।

অন্যদিকে দেশের উত্তর ও পূর্বাঞ্চলের ৭ জেলায় একযোগে বন্যা কবলিত হয়েছে। আগামী ৪৮ ঘন্টার মধ্যে আরও দুই জেলা আক্রান্ত হবে বলে আশঙ্কা। বন্যা কবলিত জেলাগুলি হল-কুড়িগ্রাম, গাইবান্ধা, লালমনিরহাট, নীলফামারী, জামালপুর, সিলেট ও সুনামগঞ্জ বন্যা কবলিত হয়েছে। বিশেষজ্ঞরা বলছেন, ভারতের পূর্বাঞ্চল বা উজান থেকে নেমে আসা জল, অতি বৃষ্টি ও পাহাড়ি ঢলের কারণে এই বন্যা দেখা দিয়েছে।

তা জুলাইয়ের প্রথম সপ্তাহ পর্যন্ত চলতে পারে। এফএফডব্লিউসির বুলেটিনে বলা হয়, উল্লিখিত নদীগুলোতে বাড়তে পারে জল প্রবাহ। ফলে উল্লিখিত জেলাগুলোতে বন্যা পরিস্থিতির আরও অবনতি হতে পারে বলে আশঙ্কা। বর্তমানে বিপৎসীমার সবচেয়ে উপরে বইছে যদুকাটা লরেরগড় পয়েন্টে ১২১ সেন্টিমিটার উপরে।

ধরলা বইঠে ৪১ সেন্টিমিটার, তিস্তা ডালিয়া পয়েন্টে ১৮ সেন্টিমিটার, ব্রহহ্মপুত্র নুনখাওয়া ও চিলমারিতে যথাক্রমে ২১ ও ৩৫ সেন্টিমিটার উপরে বইছে। যমুনা ফুলছড়ি ও বাহাদুরাবাদ পয়েন্টে ২৫ ও ১৮ সেন্টিমিটার উপরে এবং সুরমা কানাইঘাটে ৪০ ও কুশিয়ারা সুনামগঞ্জে ৪৬ সেন্টিমিটার উপরে বইছে।

পাশাপাশি আগামী ৪৮ ঘণ্টার মধ্যে আক্রান্ত হবে আরও দুই জেলা: এদিকে এক সপ্তাহের মধ্যে দেশের আরও বেশ কয়েকটি জেলায় বন্যাকবলিত হওয়ার আশংকা রয়েছে বলে মনে করা হচ্ছে।

Proshno Onek II First Episode II Kolorob TV