ঢাকা: হঠাত ঘুর্ণিঝড়ে লন্ডভন্ড গোটা সরাইল। এলাকার তিনটি গ্রাম একেবারে হুলস্থুল ঘটে গিয়েছে। হঠাত ঘুর্ণিঝড়ে এলাকার ৬ শিশুসহ অন্তত ১৫ জন আহত হয়েছেন বলে জানাচ্ছে বাংলাদেশের সংবাদমাধ্যম।

শনিবার সকালে উপজেলার নোয়াগাঁও ইউনিয়নের আইরল (শান্তিনগর), কুচনি ও বুড্ডা গ্রামের ওপর দিয়ে বয়ে যায় প্রবল এই ঘূর্ণিঝড়। আর তাতেই ভেঙে পড়েছে এলাকার একাধিক বাড়ি, গাছ। স্থানীয় বাংলাদেশের সংবাদমাধ্যমকে প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, শনিবার সকালের দিকে শুরু হয় প্রবল এই ঘূর্ণিঝড়। ঘন্টায় প্রায় ৮০ থেকে ৯০ কিমি বেগে বয়ে যায় ঝোড়ো হাওয়া।

হঠাত করে আসা বিধ্বংসী এই ঝড়ে শুধু একটি ইউনিয়ন নোয়াগাঁও এর তিনটি গ্রাম লণ্ডভণ্ড করে দেয়। অল্প সময়ের ঝড়ের তাণ্ডবে লণ্ডভণ্ড হয়ে যায় কুচনি, বুড্ডা ও শান্তিনগর গ্রামের ২০ থেকে ৩০টি বসতঘর। ভয়াবহ এই তাণ্ডবে তিন গ্রামে আহত হয়েছে ১৫ জন। এর মধ্যে ৬ জনই শিশু। আহতদের মধ্যে রাজিয়া বেগম নামে একজন সরাইল উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

এই ব্যাপারে সরাইল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা এ এস এম মোসা জানান, তাৎক্ষণিক ক্ষতিগ্রস্ত ৩০ পরিবারের প্রত্যেক পরিবারকে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে ২০ কেজি করে চাল সহায়তা দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছেন ইউএনও। ইউএনও আরও বলেন, পরবর্তীতে জেলা প্রশাসক মহোদয় প্রত্যেক পরিবারকে ২ বান্ডিল টিন ও নগদ ৬ হাজার টাকা দেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন। তবে হঠাত করে আসা কয়েক মিনিটের এই ঘুর্নিঝড়ে তীব্র আতঙ্ক।

কলকাতার 'গলি বয়'-এর বিশ্ব জয়ের গল্প