ঢাকা: করোনাভাইরাস সংক্রমণের মাঝে অল্প হলেও স্বস্তি। কারণ দক্ষিণ কোরিয়া থেকে আসা ভাইরাস জিরো স্প্রে। এটা ছড়িয়েই আপাতত জীবাণু রোধের চেষ্টা চলবে বাংলাদেশে। দক্ষিণ কোরিয়ায় এই জীবাণুনাশকের সফল প্রয়োগ হয়েছে।

জানা গিয়েছে, বাংলাদেশের সব সংশোধনাগারে করোনাভাইরাস রোধে এবং বন্দিদের স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করতে কোরিয়া থেকে আমদানিকৃত নতুন মেডিসিন ‘ভাইরাস জিরো’ স্প্রে করা হবে। সেগুলো সুষ্ঠুভাবে ব্যবহারের জন্য কারা অধিদফতরের ডিআইজি ও কর্মকর্তাদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। বাংলাদেশে করোনার সামাজিক সংক্রমণ চলছে। দুশোর কাছাকাছি মৃত। ১১ হাজার ছাড়িয়ে ভাইরাস আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বাড়ছেই। ওয়ার্ল্ডোমিটার জানাচ্ছে এই তথ্য।

ফাইল ছবি

এই অবস্থায় ভাইরাস জিরো স্প্রে প্রথমে জেলে প্রয়োগ করা হবে। কারণ, সংশোধনাগারগুলিতে মারাত্মক সংক্রমণ ছড়ানোর আশঙ্কা। এর ফলে পুলিশ মহলেও আরও ছড়াবে করোনা। ইতিমধ্যে পুলিশ ও নিরাপত্তা বাহিনিতে সংক্রমণের হার উদ্বেগজনক। জেলে করোনা সংক্রমণ ঠেকাতে খোলা হয়েছে কোয়ারেন্টাইন বিভাগ।

কোনও বন্দির করোনার উপসর্গ দেখা গেলে সঙ্গে সঙ্গে তার জন্য এবং তার আশপাশে যারা আছে সবাইকে আলাদা করে দেয়া হচ্ছে। ঢাকা মেডিকেলে যেসব কারারক্ষী দায়িত্বপালন করেন তাদের ২০ জনের করোনা শনাক্ত হয়েছে এবং তাদের চিকিৎসার জন্য প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

কোনগুলো শিশু নির্যাতন এবং কিভাবে এর বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়ানো যায়। জানাচ্ছেন শিশু অধিকার বিশেষজ্ঞ সত্য গোপাল দে।