ঢাকাঃ  সাগরে গভীর নিম্নচাপ। আর যার জেরে উত্তাল সাগর। উত্তাল সাগরের মধ্যে পড়ে ডুবে গেল সিমেন্টের ক্লিংকারবাহী দুটি জাহাজ। বুধবার দুপুরের দিকে বঙ্গোপসাগরের কুতুবদিয়ার অদূরে ঠেঙ্গারচরে আবুল খায়ের গ্রুপের মালিকানাধীন লাইটার জাহাজ এমভি টিটু-১৯ ও এমভি টিটু-১৮ ডুবে যায় বলে বাংলাদেশ নৌবাহিনী ও বিআইডব্লিউটিএ’র তরফে জানানো হয়েছে। উত্তাল সমুদ্র থেকে দুটি জাহাজের ক্রুদের সকলকে উদ্ধার করা যায়নি। যদিও যুদ্ধকালীন তৎপরতায় উদ্ধার কাজ শুরু হয়ে গিয়েছে। বাংলাদেশ নৌবাহিনীর জাহাজ দুর্জয়, শৈবাল, সুরভী ও সোয়াডস উদ্ধার কাজ শুরু হয়েছে।

বিআইডব্লিউটিএ চট্টগ্রামের মহম্মদ সেলিম স্থানীয় সংবাদমাধ্যমকে বলেন, কুতুবদিয়ার কাছাকাছি গভীর সমুদ্রে বড় জাহাজ থেকে ক্লিংকারবোঝাই হয়ে জাহাজ দুটি নারায়ণগঞ্জ ও মুন্সীগঞ্জ যাচ্ছিল। সেই সময় তিন নম্বর সতর্ক সংকেতের মধ্যে সাগর উত্তাল থাকায় প্রচণ্ড ঢেউয়ে একটি জাহাজের তলা ফেটে যায় বলে জানিয়েছেন সেলিম সাহেব। অপর একটি জাহাজের হ্যাজ ভেঙে। পরে জাহাজ দুটি ঠেঙ্গার চর এলাকায় ডুবে যায়।

এসব জাহাজ দুটির প্রতিটিতে ১২ জন করে ক্রু থাকে জানিয়ে বিআইডব্লিউটিএ চট্টগ্রামের মহম্মদ সেলিম বলেন, “এমভি-টিটু-১৮ এর সকল ক্রুকে উদ্ধার করা হয়েছে। অপর লোকদের উদ্ধারে নৌবাহিনী কাজ করছে।”