ঢাকা: টেস্ট খেলেন না৷ অবসর নিয়েছেন টি-২০ থেকেও৷ বিশ্বকাপের পর মাশরাফি মোর্তাজা ওয়ান ডে ক্রিকেটকেও পাকাপাকিভাবে বিদায় জানাবেন বলে মনে করা হচ্ছিল৷ সেই ধারণাকে আপাতত ভুল প্রমাণিত করলেন মোর্তাজা৷ অবসরের পথে না হেঁটে শ্রীলঙ্কা সফরের ওয়ান ডে সিরিজ খেলার সিদ্ধান্ত নিলেন তিনি৷

জাতীয় নির্বাচকরা আরও একবার মাশরাফির হাতেই নেতৃত্বের ব্যাটন তুলে দেন৷ যদিও তিন ম্যাচের এই সংক্ষিপ্ত সিরিজে বিশ্রাম দেওয়া হয়েছে বাংলাদেশের বিশ্বকাপ হিরো শাকিব আল হাসানকে৷ ব্যক্তিগত কারণে সিরিজ থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন লিটন দাস৷ শাকিব ও লিটনের পরিবর্তে জাতীয় দলে ফিরেছেন বাঁ-হাতি স্পিনার তাইজুল ইসলাম ও টপ-অর্ডার ব্যাটসম্যান এনামূল হক৷ বিশ্বকাপের স্কোয়াডে থাকলেও একটিও ম্যাচ না খেলা পেসার আবু জায়েদের জায়গা হয়নি শ্রীলঙ্কা সফরের দলে৷

বাংলাদেশের নির্বাচক প্রধান মিনহাজুল আবেদিন জানান, ‘বিশ্বকাপের অধ্যায় শেষ৷ এবার নতুন একটা অধ্যায় শুরু করার সময়৷ শ্রীলঙ্কা সফরটা আমাদের কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ৷ তাই দল নিয়ে অযথা পরীক্ষা নিরীক্ষার রাস্তায় হাঁটা উচিত নয়৷ যেহেতু শাকিব ও লিটন নেই, তাই তাদের জায়গায় দু’জনকে দলে ফেরানো হয়েছে এবং বিশ্বকাপ দলের একজন সদস্যকে বাদ দেওয়া হয়েছে৷’

সদ্য সমাপ্ত বিশ্বকাপে মাত্র তিনটি ম্যাচে জেতে বাংলাদেশ৷ দশ দলের টুর্নামেন্টে অষ্টম স্থানে থেকে লিগ পর্ব থেকেই বিদায় নিতে হয় মাশরাফিদের৷ ব্যাটে-বলে চূড়ান্ত ব্যর্থ মাশরাফি ব্যর্থতার দায় নিজের কাঁধে নিলেও জাতীয় নির্বাচকরা তাঁর উপরেই আস্থা রাখেন এবং শ্রীলঙ্কা সফরের জন্য মোর্তাজাকেই ক্যাপ্টেন নির্বাচিত করেন৷

বিশ্বকাপের পরেই হেড কোচ স্টিভ রোডসকে ছেঁটে ফেলে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড৷ ব্যাটিং কোচ ম্যাকেঞ্জ ও বোলিং কোচ ওয়ালসের সঙ্গেও চুক্তি নবীকরণ না করার সিদ্ধান্ত নেয় বিসিবি৷ আপাতত ওয়াসিম জাফরকে ব্যাটিং কোচ করে শ্রীলঙ্কা সফরে জাতীয় দলের সঙ্গে পাঠানোর কথা জানানো হয়েছে বোর্ডের তরফ৷ বাংলাদেশই প্রথম দল যারা সন্ত্রাসবাদী হামলার পর শ্রীলঙ্কায় ক্রিকেট খেলতে যাচ্ছে৷ আগামী ২৬, ২৮ ও ৩১ জুলাই কলম্বোর আর প্রেমদাসা স্টেডিয়ামে খেলা হবে সিরিজের তিনটি ওয়ান ডে ম্যাচ৷

শ্রীলঙ্কা সফরের জন্য বাংলাদেশ দল: মাশরাফি মোর্তাজা (ক্যাপ্টেন), তামিম ইকবাল, সৌম্য সরকার, এনামূল হক, মহম্মদ মিঠুন, মুশফিকুর রহিম (উইকেটকিপার), মাহমুদুল্লাহ, মোসাদ্দেক হোলেন, সাব্বির রহমান, মেহেদি হাসান, তাইজুল ইসলাম, রুবেল হোসেন, মহম্মদ সঈফুদ্দিন ও মুস্তাফিজুর রহমান৷