অরুণাভ রাহারায়, কলকাতা: ৪৪তম কলকাতা বইমেলায় বাংলাদেশ প্যাভিলিয়ন সেজে উঠেছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্মরণে। এই মুহূর্তে সারা বাংলাদেশে ঘটা করে পালিত হচ্ছে মুজিব শত বর্ষ। কলকাতা বইমেলাতেও বাংলাদেশ প্যাভিলিয়নে বঙ্গবন্ধুর ছোঁয়া। ১৭ মার্চ বঙ্গবন্ধুর জন্মদিন। বইমেলার কর্মকর্তারা ইতিমধ্যেই জানিয়েছেন আগামীবার কলকাতা বইমেলায় থিম প্যাভিলিয়ন হতে পারে বাংলাদেশ।

বঙ্গবন্ধুর শতবর্ষের কারণেই এমন উদ্যোগ নেওয়ার কথা ভেবেছে বইমেলার কর্মকর্তারা। তাঁরা জানিয়েছেন, কলকাতায় অবস্থিত বাংলাদেশ দূতাবাসের আধিকারিকদের সঙ্গে বৈঠক করে আগামী দিনে ৪৫তম কলকাতা বইমেলার থিম প্যাভিলিয়ন নিয়ে আলোচনা করা হবে। উভয় পক্ষের সম্মতিতে আগামীবার বইমেলা পেতেই পারে বাংলাদেশ থিম প্যাভিলিয়ন।

এবার কলকাতা বইমেলার থিম প্যাভিলিয়ন রাশিয়া। প্রতি বছর বইমেলায় একটি নির্দিষ্ট দেশকে ফোকাস করা হয়ে। বইমেলার শেষ দিন ঘোষণা হয় পরের বারের থিম প্যাভিলিয়ন। এবার থিম প্যাভিলিয়নের পাশাপাশি ভিড় টানছে বাংলাদেশ প্যাভিলিয়নও। ফি বছর বাংলাদেশের প্রকাশকদের জন্য বিশেষ জায়গার ব্যবস্থা করেন গিল্ড কর্তৃপক্ষ।

এবারও বইমেলা উপলক্ষে বাংলাদেশ থেকে এসেছেন বহু প্রকাশক। ভাষাচিত্র, অন্য প্রকাশ, প্রথমা ইত্যাদি প্রকাশনা বইমেলায় যোগ দিয়ে বেশ খুশি। কলকাতার পাঠকরা বাংলাদেশের বইপত্র পড়তে ভালোবাসেন। সে করণেই কলকাতার বুকে এখন প্রতি বছর অনুষ্ঠিত হয় বাংলাদেশ বইমেলা। এছাড়াও কলকাতা বইমেলায় থাকে বাংলাদেশের জন্য আলাদা প্যাভিলিয়ন।

বইমেলার তৃতীয় দিন ১০ মিনিটের বৃষ্টিতে বিপর্যস্ত হয়েছে বইমেলা। অনেক স্টলের বই ভিজে গিয়েছে। ক্ষতিগ্রস্ত বাংলাদেশ প্যাভিলিয়নও। তবু বাংলাদেশি প্রকাশদের কলকাতা বইমেলা নিয়ে উন্মাদনার শেষ নেই। গত বার আওয়ামী লীগের ‘গর্ভগৃহ’ রোজ গার্ডেন নজর কেড়েছিল কলকাতা বইমেলায়। আর আকর্ষণ তৈরি করেছে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের শতবর্ষ উপলক্ষে সাজানো তাঁরই নানা ছবি দিয়ে সাজানো বাংলাদেশ প্যাভিলিয়ন।