ঢাকা: রাজনৈতিক তরজা, বিক্ষিপ্ত খুন নিয়ে প্রথম দফার পৌর নির্বাচন হয়েছে। শনিবার দ্বিতীয় দফায় ৬০টি পৌরসভার ভোট ঘিরে একই চিত্র। করোনা সংক্রমণের মাঝেই বাংলাদেশের মোট ৩২৯টি পৌরসভার ভোট গ্রহণ প্রক্রিয়া চলছে।

নির্বাচনে মূল লড়াই দেশে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ বনাম অন্যতম বিরোধী দল বিএনপির। তবে বিভিন্ন পৌরসভায় অন্যান্য দলের শক্তির পরীক্ষা হবে। দ্বিতীয় ধাপে ৬০টি পৌরসভায় নির্বাচন অনুষ্ঠিত হবে আগামীকাল শনিবার। নির্বাচন সুষ্ঠু করতে সব রকমের প্রস্তুতি নিয়েছে নির্বাচন কমিশন। প্রতিটি কেন্দ্রে আনসার ও পুলিশ সদস্য এবং ঝুঁকিপূর্ণ কেন্দ্রে র‍্যাব সদস্য মোতায়েন থাকবে।

ভোট নিয়ে সেই উদ্বেগ আশঙ্কার কথা বিবেচনায় রেখে নির্বাচন কমিশন অতিরিক্ত নিরাপত্তা বাহিনি মোতায়েন করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

দ্বিতীয় ধাপের এই পৌর নির্বাচনে আটটি রাজনৈতিক দল তাদের নিজস্ব প্রতীক নিয়ে অংশ নিচ্ছে। ভোটের আগেই তিন পৌরসভায় আওয়ামী লীগ মনোনীত মেয়র পদপ্রার্থীরা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।

এই ধাপে আওয়ামী লীগ, বিএনপি, জাতীয় পার্টি(জাপা), ইসলামী আন্দোলন, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল(জাসদ), লিবারেল ডেমোক্রেটিক পার্টি(এলডিপি), জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলন(এনডিএম)ও ন্যাশনাল পিপলস পার্টি (এনপিপি)এর প্রার্থীরা অংশ নিচ্ছেন। মোট মেয়র পদপ্রার্থী ২২১ জন।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।