ঢাকা: ভারতের পাঠানো ২০ লক্ষ ডোজের করোনা ভ্যাকসিন উপহার পৌঁছে গিয়েছে বাংলাদেশে। অন্যদিকে অন্যতম বিরোধী দল বিএনপির অভিযোগ, উপহারের বাইরে যে টিকা কেনা হচ্ছে তার জন্য অনেক বেশি দাম দিচ্ছে সককার। নিজেদের লোককে চুরির সুযোগ করে দিতেই এমন উদ্যোগ আওয়ামী লীগ সরকারের।

বুধবার ছিল বিএনপি প্রতিষ্ঠাতা প্রয়াত রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের জন্মবার্ষিকী। সেই অনুষ্ঠানে বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর চাঞ্চল্যকর অভিযোগ করেন। তিনি বলেন, সরকার ভ্যাকসিন নিয়ে জনগণের সঙ্গে লুকোচুরি করছে। সাধারণ মানুষ আদৌ ভ্যাকসিন পাবে কিনা সে বিষয়ে কোনও রোডম্যাপ নেই।

মির্জা ফখরুল বলেন, সরকার ভারতের কাছ থেকে অনেক বেশি দামে করোনার ভ্যাকসিন আনছে শুধু নিজেদের লোকদের চুরি ডাকাতিকে প্রশ্রয় দিতে। দেশে এখন কোনও গণতন্ত্র নেই।

বিএনপি মহাসচিব আরও বলেন, যে ভ্যাকসিন দিয়ে মানুষের জীবন বাঁচবে, সেটা নিয়েও লুটপাট শুরু করেছে। সরকার বলছে আগে ২০ লাখ ডোজের । ভ্যাকসিন আসবে। এই ২০ লাখ কারা পাবে সেটাও আমরা জানি না। প্রতি মাসে ৫০ লাখ করে আসবে, সেটা কারা পাবে সেটাও আমরা জানি না। আমরা যারা সাধারণ মানুষ কখন তা পাব তার কোনও নিশ্চয়তা নেই।

লাল-নীল-গেরুয়া...! 'রঙ' ছাড়া সংবাদ খুঁজে পাওয়া কঠিন। কোন খবরটা 'খাচ্ছে'? সেটাই কি শেষ কথা? নাকি আসল সত্যিটার নাম 'সংবাদ'! 'ব্রেকিং' আর প্রাইম টাইমের পিছনে দৌড়তে গিয়ে দেওয়ালে পিঠ ঠেকেছে সত্যিকারের সাংবাদিকতার। অর্থ আর চোখ রাঙানিতে হাত বাঁধা সাংবাদিকদের। কিন্তু, গণতন্ত্রের চতুর্থ স্তম্ভে 'রঙ' লাগানোয় বিশ্বাসী নই আমরা। আর মৃত্যুশয্যা থেকে ফিরিয়ে আনতে পারেন আপনারাই। সোশ্যালের ওয়াল জুড়ে বিনামূল্যে পাওয়া খবরে 'ফেক' তকমা জুড়ে যাচ্ছে না তো? আসলে পৃথিবীতে কোনও কিছুই 'ফ্রি' নয়। তাই, আপনার দেওয়া একটি টাকাও অক্সিজেন জোগাতে পারে। স্বতন্ত্র সাংবাদিকতার স্বার্থে আপনার স্বল্প অনুদানও মূল্যবান। পাশে থাকুন।.

জীবে প্রেম কি আদৌ থাকছে? কথা বলবেন বন্যপ্রাণ বিশেষজ্ঞ অর্ক সরকার I।