ঢাকা: করোনাভাইরাসে আক্রান্ত আরও একজনের মৃত্যু হয়েছে বাংলাদেশে। নতুন করে আক্রান্ত হয়েছেন আরও চারজন। শনিবার দুপুরে স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেক এই তথ্য জানান। নতুন করে একজনের মৃত্যু হওয়ায় বাংলাদেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত মৃতের সংখ্যা দাঁড়ালো দুজন। এই ভাইরাসে আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়ালো ২৪ জনে। এদের মধ্যে তিনজন সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন।

শনিবার পর্যন্ত বিশ্বজুড়ে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃত্যু হয়েছে ১১ হাজার ৪০২ জনের। আর মোট আক্রান্ত মানুষের সংখ্যা দাঁড়িয়েছে অন্তত ২ লক্ষ ৭৫ হাজার ৪৫২ জন। এদের মধ্যে ৮৮ হাজার ২৫৮ জন ইতোমধ্যে সুস্থ হয়ে উঠেছেন। বাংলাদেশেও ইতিমধ্যে কয়েকজন সুস্থ হয়েছেন।

তবে বিদেশ ফেরত যারা তাদে মধ্যে সরকারি নিয়মে কোয়ারেন্টাইনে থাকার প্রবণতা কম। এতেই চিন্তা বাড়ছে। হু জানিয়েছে, বাংলাদেশ প্রবল করোনা ঝুঁকির দেশ হতে পারে।

বিপদে বাংলাদেশ, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা (হু) আগেই এমন সতর্কতা দিয়ে রেখেছে। ছড়িয়েছে করোনা সংক্রমণ। আক্রান্ত ২০ জন। মৃত ১ জন। হাজারে হাজারে মানুষ রয়েছেন কোয়ারেন্টাইনে। চলছে দেদার নিয়ম ভাঙা। এরই মাঝে জাতীয় সংসদের তিনটি আসনে উপ নির্বাচনের মতো বিতর্কিত ঘটনা।

আশঙ্কা এর ফলে করোনা সংকিরমণ আরও ছড়াবে। ঢাকা-১০, গাইবান্ধা-৩ এবং বাগেরহাট-৪ আসনে উপনির্বাচনের ভোটগ্রহণে যে হাজারে হাজারে মানুষ ভোট দিচ্ছেন তাঁদের মধ্যে করোনা সংক্রমণ ছড়াতে পারে। কারণ, একে তো দীর্ঘ সময় লাইনে কাছাকাছি দাঁড়ানো। সেই সঙ্গে রয়েছে ইভিএমে বোতাম টেপা। বিশেষজ্ঞরা জানিয়েছেন, এই দুটি কারণেই করোনা বিরাট আকারে ছড়িয়ে পড়তে পারে।

ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে ভোট গ্রহণে করোনাভাইরাস সংক্রমণের ঝুঁকি রয়েছে। এমন সতর্কতা সরকারি সংস্থার কাছ থেকে আসার পরেও ভোটের নির্দেশ ঘিরে বিতর্ক বাড়ছেই।

প্রশ্ন অনেক-এর বিশেষ পর্ব 'দশভূজা'য় মুখোমুখি ঝুলন গোস্বামী।